নবাবগঞ্জে শিশুসহ অপহরনকারী আটক; পরকীয়া না অপহরন

194
নবাবগঞ্জে শিশুসহ অপহরনকারী আটক

মানিকগঞ্জের সিংগাইর থেকে পাচার হওয়া দেড় বছরের শিশু রাফিকে উদ্ধার করে আলাউদ্দিন (৩৬) নামে এক শিশু পাচারকারীকে আটক করেছে নবাবগঞ্জ থানা অন্তর্গত পাতিলঝাপ ক্যাম্পের পুলিশ। সোমবার দুপুর ২ টায় নবাবগঞ্জের পাতিলঝাপ বাজার থেকে তাকে আটক করা হয়। আটকৃত আলাউদ্দিন মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার সায়েস্তা ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের মৃত মদন খানের ছেলে।

পাচার করে নিয়ে আসা রাফি নামের শিশুটি সিংগাইরের শায়েস্তা ইউনিয়নের ঋষিপাড়া গ্রামের ইমরান খান ও রাইবিনা আক্তারের ছেলে।

সূত্র জানায়, পরিচয়ের পর দুজনের মধ্যে দীর্ঘ সময় ফোনে আলাপ হয়। আলাউদ্দিন এই ঘনিষ্ঠতাকে প্রেমের সম্পর্ক ধরে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু তাতে রাজি হননি ওই নারী। এতে তিনি যোগাযোগও বন্ধ করে দেন। এর পরও আলাউদ্দিন বিভিন্ন সময় ফোন করে বিয়ের জন্য ওই গৃহবধূকে চাপ দিতে থাকে। ১৫ দিন আগে আলাউদ্দিন ফোন করে হুমকি দেয়, তাকে বিয়ে না করলে সে বড় ধরনের ক্ষতি করবে।

ওই গৃহবধূ বলেন, ‘আলাউদ্দিনের ভয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে চলে আসি। সর্বশেষ গত রবিবার রাত ৮টার দিকে আলাউদ্দিন আমাকে ফোন দেয়। ফোন রিসিভ না করে ছেলে রাফিকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। পরে রাত ২টার দিকে ঘুম থেকে উঠে দেখি পাশে ছেলে নাই। ঘরের সিঁধ কেটে কে বা কারা আমার বাচ্চা নিয়ে গেছে।’ গৃহবধূর মা জানান, অনেক খোঁজাখুঁজি করেও নাতিকে না পেয়ে গতকাল সোমবার সকালে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানো হয়। থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে চুরি যাওয়া শিশুটির পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলি। তাদের কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে বিভিন্ন স্থানে অভিযান ও আশপাশের সব থানা ও পুলিশ ফাঁড়িতে জরুরি মেসেজ পাঠানো হয়। পুরো এলাকায় তল্লাশি চালানো হয়। পরে আলাউদ্দিনের মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে বাড়ির ঠিকানা ও তার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে পেরে আলাউদ্দিন শিশুটিকে নিয়ে বাড়ি থেকে সটকে পড়ে। পালিয়ে যাওয়ার সময় বেলা ২টার দিকে ঢাকার নবাবগঞ্জ থানার পাতিলঝাপ ফাঁড়ি পুলিশ তাকে আটক করে। পরে সেখান থেকে শিশুটিকে উদ্ধার এবং আলাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে থানায় আনা হয়। এ ঘটনায় শিশু রাফির মা রাইবিনা বাদী হয়ে আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে সিংগাইর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে চুরির গাড়ীসহ আটক ২

নবাবগঞ্জ থানার পাতিলঝাপ পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ কাওসার হোসেন বলেন, পাচার হওয়া শিশুকে উদ্ধার করে অপহরনকারীকে আটক করা হয়। পাচারকারীর বিরুদ্ধে সিংগাইর থানায় এ ব্যাপারে অভিযোগ থাকায় তাকে সিংগাইর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে সিংগাইর থানার উপ- পরিদর্শক আলমগীর হোসেন বলেন, শিশু বাচ্চা পাচার করার অপরাধে আলউদ্দিনের বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে ।

Comments

comments