নবাবগঞ্জে মায়ের মাদকের ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে বড় ছেলে কামাল

229

নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৫৭ পিছ ইয়াবা সহ কামাল নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ। আটককৃত কামাল উপজেলার নয়নশ্রী ইউনিয়নের বিলপল্লী গ্রামের আবুল কালাম জীবনের বড়ছেলে। পুলিশ সূত্রে জানা যায় গত ৩০ সেপ্টেম্বর আনুমানিক রাত ৮টার দিকে উপ-পরিদর্শক  মুন্সী আশিকুর রহমানের নেত্রীত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সহ গোপন সংবাদের ভিত্তীতে অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ির রাস্তা থেকে তাকে আটক করা হয়।

নাম প্রকাশে অনচ্ছুক স্থানীয় এক এলাকাবাসী জানায়, কামাল আমাদের এলাকার একটি অভিশাপ। রাত দিন সে নেশা করে ও বিক্রি করে। কামালের মা ধন্ধি ছিলো বাংলা মদ বিক্রেতা। প্রায় ২৫ বছর ধরে সে প্রশাসনকে হাত করে এই মদ বিক্রি করতো। কিন্তু বর্তমান প্রশাসন  মাদকের উপর করা নজর থাকায় সে দেশ ছেড়ে বিদেশে পালিয়ে যায়।

কিন্তু ধন্ধি পালিয়ে যাওয়ার পরেও আমরা গ্রামবাসী এই মাদকের হাত থেকে রক্ষা পাইনি। তার বড় ছেলে কামাল এই ব্যবসার খেয়াল রাখছে। তার কারনে আমাদের এলাকার অনেক ছেলেপেলে মাদকের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। আমরা এখন আমাদের সন্তানদের নিয়ে খুবই  চিন্তিত। কখন যে তারা কামালের আড্ডায় পড়ে নষ্ট হয়ে যায় আল্লাহই জানে। পুলিশ তাকে আটক করেছে শুনে আমরা খুব খুশি হয়েছি। আমরা তার শাস্তি দাবি করছি।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জ পুলিশের গ্রাম পুলিশের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

নবাবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক কামরুল হাসান ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, কামাল একজন তালিকাভোক্ত চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। শুধু তাই নয় তার পুরো পরিবারই মাদক সহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত এবং বিভিন্ন মামলার আসামি। উপ-পরিদর্শক আরো বলেন কামালের মা শাহানা ওরফে ধন্ধি ছিলো একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী । সে প্রকাশ্যে মাদক (বাংলা মদ) বিক্রি করতো। কিন্তু হঠাৎ করে ধন্ধি বিদেশে (জর্দান) যাওয়ায় মায়ের মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে বড় ছেলে কামাল এ তথ্য জানতে পেরে আমরা অভিযান চালাই এবং তাকে ইয়াবা সহ আটক করি। কামালের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করে কোর্টে পাঠানো হয়েছে।

Comments

comments