নবাবগঞ্জে কৃষি ঋণের টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ

46
নবাবগঞ্জে কৃষি ঋণের টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ

ঢাকার নবাবগঞ্জ শাখা কৃষি ব্যাংকের প্রাক্তন ব্যবস্থাপক সাফিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে কৃষি ঋণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। সাফিয়ার রহমান কৃষকদের কাছ থেকে কাগজপত্র, স্বাক্ষর নিয়ে ঋণের টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে ভুক্তভোগী কৃষকদের অভিযোগ। সাফিয়ার রহমান ২৮শে অক্টোবর ২০১৩ইং থেকে ১৪ই অক্টোবর ২০১৫ইং সাল পর্যন্ত এ শাখায় ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি ব্যাংকের রাজধানীর কাওরান বাজার কর্পোরেট শাখায় কর্মরত আছেন বলে বর্তমান শাখা ব্যবস্থাপক জানান।

জানা যায়, এ অভিযোগে ইতিমধ্যে কৃষি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সাফিয়ার রহমানকে ডিমোশন দিয়েছে। এ ছাড়া ব্যাংকের ২ কোটি ২৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ৫ম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এ ছাড়াও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সাফিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন খাতে অগ্রিম টাকা, খরচ ভাউচার দেখিয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকের ২ কোটি টাকা আত্মসাৎসহ অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে তদন্ত করছেন।

ভুক্তভোগী গ্রাহক উপজেলার সমসাবাদ গ্রামের আব্দুল খালেক, দক্ষিণ শোল্লা গ্রামের সামছুল ইসলামসহ কয়েকজন স্থানীয় সংবাদকর্মীদের এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ২০১৩-১৫ইং সালে কৃষি ব্যাংক নবাবগঞ্জ শাখার তৎকালীন ব্যবস্থাপক সফিয়ার রহমান আমাদের ২ লাখ টাকা ঋণ দেয়ার জন্য কাগজপত্রে স্বাক্ষর নেন।

অন্য খবর  প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে নবাবগঞ্জে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

পরে হেড অফিসের অনুমতির জন্য কাগজ পাঠানো হয়েছে বলে জানান। কিন্তু ২ মাস পর জানানো হয় ঋণ অনুমোদন হয়নি। কাগজপত্র ফেরত চাইলে তিনি দেননি। ৩০শে নভেম্বর ২০১৭ইং সালে ব্যাংকের শাখা থেকে ঋণ পরিশোধের চিঠি আসে। আমরা বুঝতে পারি ব্যবস্থাপক সাফিয়ার রহমান আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। এরপর গ্রাহকরা এ বিষয়ে ব্যাংকে জানান।

শোল্লা গ্রামের ভুক্তভোগী গ্রাহক দেলোয়ার হোসেন জানান, ব্যাংক স্ব-প্রণোদিত হয়ে ২৭শে আগস্ট ২০১৯ইং তারিখে সাক্ষ্য ও প্রমাণসহ গ্রাহকদের উপস্থিত হতে চিঠি দেন এবং তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি করেন। ঋণের টাকা আদায়ে ব্যাংক বার বার চিঠি দিয়ে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ডেকেছিলেন। তাই তার কার্যালয়ে গিয়েছিলাম। ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে দুর্বিষহ জীবন যাপন করছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচএম সালাউদ্দীন মনজু বলেন, কৃষকরা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে খেয়াল রেখে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে।

কৃষি ব্যাংক নবাবগঞ্জ শাখার বর্তমান ব্যবস্থাপক মো. রায়হান আহমেদ জানান, আমি নতুন যোগদান করেছি। আমার বেশি কিছু জানা নেই।

এ বিষয়ে সাফিয়ার রহমানের সঙ্গে যোগাযোগের কোনো মাধ্যম না পাওয়ায় তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ উদ্বোধন

Comments

comments