নবাবগঞ্জে ইয়াবাসহ যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার, দল থেকে বহিস্কার

187

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধিঃ ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মামুন ওরফে ডিএম মানুনকে ৬৫ পিস ইয়াবাসহ আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর নবাবগঞ্জ সার্কেলের একটি দল।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি উপজেলার টিকরপুর এলাকার আবুল কালাম আজাদ দারুর ছেলে।

ঢাকা জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী উপপরিদর্শক রফিকুল ইসলাম বলেন, মামুন দীর্ঘদিন ধরে আইনশৃংখলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে দোহার-নবাবগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকের ব্যবসা করে আসছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার টিকরপুরে নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আটক করে তার দেহ তল্লাশি করে ৬৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। পরে মাদক আইনে মামলা দিয়ে তাকে নবাবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এবিষয়ে নবাবগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক সাহাদাত হোসেন বলেন, ৬৫ পিস ইয়াবাসহ মামুনকে আটক করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর নবাবগঞ্জ সার্কেলের কর্মকর্তারা থানায় হস্তান্তর করেছেন। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।
এ ঘটনায় ডিএম মামুনকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দলীয় প্যাডে ঢাকা জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মিজানুর রহমানের স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তাকে বহিস্কার করা হয়।

অন্য খবর  দোহারে নতুন করে করোনা আক্রান্ত নেই

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ একটি সুসংগঠিত ও সুশৃঙ্খল সংগঠন। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এর কেন্দ্রীয় নির্দেশে ঢাকা জেলার যুবলীগের অর্ন্তভূক্ত নবাবগঞ্জ উপজেলার যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক ডিএম মামুনকে শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার কারণে তাকে যুগ্ম সম্পাদক পদ থেকে বহিস্কার করা হলো।

নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর আলম বলেন, যুবলীগে কোন অপরাধীর স্থান নেই। সংগঠনের ভিতরে থেকে কেউ যদি কোন অনৈতিক কাজ করে সাথে সাথে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Comments

comments