নবাবগঞ্জে অপহৃত ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার, আটক ৪

352

অপহৃত নবাবগঞ্জ উপজেলার ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার বিকেল নবাবগঞ্জ ও সিংগাইর থানার সীমান্তবর্তী এলাকার খতিয়া গ্রামে পাট ক্ষেত থেকে চালক সাইদুল ইসলামের (১৭) লাশ উদ্ধার করা হয়। সাইদুর ইসলাম উপজেলার কৈলাইল গ্রামের জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় নবাবগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, গত ৭ সেপ্টেমর দুপুরে সাইদুল ইসলামের ইজিবাইক ভাড়া করে স্থানীয় শাহ আলম। সে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সাইদুলকে নবাবগঞ্জ ও সিংগাইর থানার সীমান্তবর্তী এলাকায় নিয়ে যায়। পরে ইজিবাইকটি মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলা মুক্তা-মিতু এন্টারপ্রাইজ নামে একটি গাড়ির গ্যারেজে ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে নগদ ১৫ হাজার টাকা দেয় এবং গাড়ির মালিক এলে বাকি টাকা দেয়া হবে বলে জানায়।

এ ঘটনায় নিহতের পরিবার নবাবগঞ্জ থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নবাবগঞ্জ থানার কৈলাইল গ্রামের আরিফ, শহীদ, রানা এবং জাহিদুল নামে ৪ যুবককে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। গ্রেপ্তারকৃতদের তথ্যের ভিত্তিতে খতিয়া এলাকা থেকে সাইদুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

অন্য খবর  দোহার-নবাবগঞ্জের ইটভাটায় শিশু শ্রম!

নবাবগঞ্জ থানার ওসি সায়েদুল ইসলাম জানান, ঘটনার মূলহোতা শাহ আলম ইজিবাইকটি বিক্রি করে মেয়ের জন্মদিন পালন করবে বলে পরিকল্পনা করে। সেই অনুযায়ী সাইদুল ইসলামকে নবাবগঞ্জ ও সিংগাইর সীমান্তবর্তী এলাকায় নিয়ে ইজিবাইকটি বিক্রি করে দেয়। এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হলেও মূল আসামি শাহ আলমকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Comments

comments