দোহার নবাবগঞ্জ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎশিল্প

625
দোহার নবাবগঞ্জ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎশিল্প

ঢাকার দোহার নবাবগঞ্জ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্প। আজ অনেকেই এই শিল্পকর্ম বাদ দিয়ে পরিবারের সদস্যদের মুখে দুমুঠো খাবার দিতে বেছে নিয়েছে অন্য পেশা। জানা যায়, ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জে ভাল নেই মৃৎশিল্পরা। কালের পরিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে দুই উপজেলা থেকে ঐতিহ্য বাহি মৃৎশিল্প।

দোহার উপজেলার নারিশা ইউনিয়নের মেঘুলা কুমাড়পাড়ার এলাকার স্বপন কুমার (৭০) জানান, এক সময় মাটির তৈরি হাঁড়ি পাতিল, কলস, অনেক রকম খেলনা তৈরি কাজে পরিবারের ছোট বড় সকলে নিয়ে রাত দিন ব্যস্ত থাকতাম। সকল থেকে রাত পর্যন্ত কত যায়গা থেকে,কত লোক অর্ডার নিয়ে আসতো। আজ অর্ডারতো দুরের কথা, বাড়িতে অসুখ হয়ে মরে গেলেও কেউ উঁকি দিয়ে দেখেনা। এই কাজে আর সংসার চলেনা, তাই আমি একা বাব দাদার এই পেশা ধরে রেখেছি আর ছেলেরা এখন অন্য কাজ করে। নবাবগঞ্জ উপজেলার কলাকোপা ইউনিয়নের জীবন কুমার (৭০) জানান, এই পেশায় আগের মত সান্তুি নাই। কোথাও মেলার অনুষ্ঠান হলে একটু বেচা কেনা হয়, মেলা না থাকলে মাটির জিনিস আর বিক্রি হয়না। তাই নিজে এ পেশায় বাকিরা অন্য পেশায় আছে। একই এলাকার সুকান্ত পাল (৬৫) বলেন, আগে কত কুমাড় বাড়ি ছিল আর এখন দুই উপজেলায় হাতে গুনা পাঁচ হতে ছয়টি কুমার বাড়ি খুঁজে পাবেন।

অন্য খবর  দোহারে এক রাতে ছয় বাড়িতে ডাকাতি আটক ১

Comments

comments