দোহারে শুটিং হবে পদ্মপুরানের

484
দোহারে শুটিং হবে পদ্মপুরানের

রাজশাহী আর পদ্মা সমান্তরাল নাম। এর এই নামের আবহে নির্মিত হতে যাচ্ছে চলচ্চিত্র। আর চলচ্চিত্রের নামের সাথেও উত্তর-পশ্চিম দিয়ে ভারত থেকে প্রবেশ করা নদীর নামটিও যুক্ত রয়েছে। পদ্মাপূরাণ। যার একটি উল্লেখপযোগ্য শুটিং হবে ঢাকার পদ্মাতীরবর্তী দোহার উপজেলায়। ১৩ জুলাই থেকে শুরু হবে সিনেমার দোহারের চিত্রগ্রহন।

পদ্মানদীর ক্রমশ বিবর্তনের ওপর তৈরি চিত্রনাট্যে রুপালি পর্দায় ভাসবেন লাক্স তারকা বিপাশা কবির। নিজেকে প্রতিনিয়মিত নতুন পরিচয়ে উপস্থাপন করার ইচ্ছে বরাবর। আর এই ইছহেটাকে এবার উস্কে দিল ছবিটি। কারণ পদ্মাপূরাণের রয়েছে একটি শক্তিশালী গল্পের প্লট। নিজেকে বৈচিত্রময় যে চরিত্রে দেখতে ঠিক সেরকমই চরিত্রে কাজ করার সুযোগ রয়েছে ছবিটিতে- এমনটাই মনে করেন বিপাশা।

রায়হান শশীর চিত্রনাট্যে চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করছেন রাশিদ পলাশ। ইতোমধ্যে রাজশাহীতে পদ্মার ধারেই ৫০শতাংশ চিত্রধারণ সম্পন্ন হয়েছে। একটা সময় আইটেম কন্যা হিসেবে নিজের একটি নাম প্রতিষ্ঠিত করে ফেলেছিলেন ঢাকাই ছবির এই তারকা। এরপর সেই  ট্যাগলাইন’ থেকে বেরিয়ে আসেন। বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন।

বিপাশার ভাষ্য, গল্পের জন্যও চলচ্চিত্রে কাজ করতে হবে। যে গল্প দর্শকেরা মাথার ভেতর নিয়ে ঘুরবে। বাণিজ্যিক ছবি দর্শকদের বিনোদিত করে। এটাও যেমন দরকার আবার কিছু হৃদয় স্পর্শ করা চিরন্তন গল্পের ছবিতেও কাজ করা দরকার।

অন্য খবর  দোহারে পালিত হল সমবায় দিবস

তেমনই একটি ছবি পদ্মাপূরাণ।’ জানালেন বিপাশা বললেন,

এখানে আমাকে একজন মাদক সম্রাজ্ঞী হিসেবে। সীমান্তবর্তী এলাকায় যে নারী চালিয়ে যান মাদকের ব্যবসা।’ চলচ্চিত্রটিতে গুরুত্বপূর্ণ দুটি চরিত্রে অভিনয় করছেন চম্পা ও শম্পা রেজা।

অভিনেত্রী সাদিয়া মাহির চরিত্রটিকে ঘিরে এগিয়েছে চলচ্চিত্রটির গল্প। এছাড়াও কায়েস চৌধুরী, খলঅভিনেতা শিমুল খানকেও দেখা যাবে দু’টি অন্যরকম চরিত্রে।

Comments

comments