দোহারে মুক্তিযোদ্ধাকে ভূয়া বলায় প্রতিবাদ ও মানববন্ধন

165

ঢাকার দোহার উপজেলায় রবিবার (১৩ ই সেপ্টেম্বর) একজন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধাকে ভূয়া মুক্তিযুদ্ধা হিসেবে অভিহিত করায় তীব্র প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ হয়েছে। জানা যায়, জার্মান আওয়ামীলীগের আভ্যন্তরীণ বিরোধের জেরে দোহারের বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা, জার্মান আওয়ামীলীগ নেতা ও প্রবাসী হোটেল ব্যবসায়ী এবং কাঠালিঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি মাসুম খান ( মাসুম কন্ডাকটর) কে অমুক্তিযোদ্ধা বলায় ঢাকা দক্ষিণ ও সুদূর জার্মানিতে আওয়ামী রাজনীতিতে তীব্র বিভাজন এবং আক্রমণ – পাল্টা আক্রমণ দেখা যাচ্ছে। যার প্রভাব ফুটে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। মাসুম খানকে হেয় প্রতিপন্ন করার প্রতিবাদে ঘটনার দোহার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডিং সংসদ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও শ্রেনি পেশার মানুষ আজকের এই মানববন্দন কর্মসূচি পালন করে। দোহার উপজেলার সামনে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করেন,ঢাকার জেলার দোহার উপজেলার কাঠালীঘাটা গ্রামে নির্বাহী জনাব মোঃ মাসুম মিয়া।১৯৭১র মহান মুক্তিযুদ্ধে দোহার উপজেলার একজন সম্মুখ সারির মুক্তিযুদ্ধা।দলমত নির্বিশেষে তার রয়েছে সমাজসেবা ও শিক্ষা ব্যবস্থায় ও ব্যাপক জনপ্রিয়তা।
ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক সুরুজ আলম সুরুজ বলেন, জার্মান প্রবাসী একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। তিনি বাংলাদেশের উজ্জ্বল ভাবমূর্তির প্রতীক। কিছু ব্যাক্তি রাজনৈতিকভাবে জার্মান রাজনীতিতে তাকে হীন রাজনৈতিক স্বার্থ চরিত্রার্থ করার জন্য অশ্রাব্য কথা বলছেন, যা খুবই নিন্দনীয়। তিনি মানবতাবাদী বরেন্যে রাজনৈতিক এবং রাষ্ট্র কতৃক স্বীকৃত একজন মুক্তিযোদ্ধা। যারা এসব অপপ্রচার করছেন, তারা বিরত হন। তা নাহলে দোহারের জনগণ আপনাদের সমুচিত জবাব দিবে।
প্রতিবাদী মানববন্ধনে উপস্থিত নেতা- কর্মী ও জনসাধারণ একজন প্রকৃত মুক্তিযােদ্ধাকে সম্মান হেন করার জন্য অপরাধীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করেন।

অন্য খবর  জয়পাড়া বাজার থেকে গৃহবধু নিখোঁজ

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোতালেব খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ হাকিম,বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা এনাল আবেদীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সােহরাব হােসেন(এল,এম,জি), দোহার উপজেলা দূর্নীতি দমন কমিশনের সভাপতি একলাল উদ্দিন আহমেদ, আলমাল উদ্দিনসহ আরো অনেকে।

Comments

comments