দোহারে প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ইউএনও কে বিদায়ী সংবর্ধনা

43
দোহার উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবা ঢাকার গাজীপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) হিসেবে পদোন্নতি পাওয়া গত (৪ জুন ) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারি সচিব এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেন। তারি ধারাবাহিকতায় দোহার প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা সোমবার সকালে ইউএনও’র কার্যালয়ে উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবাকে এই সন্মাননা প্রদান করেন।
উপজেলা সুত্রে থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৫ই মার্চ দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দোহার উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন আফরোজা আক্তার রিবা। তিনিই ছিলেন দোহারের প্রথম নারী কর্মকর্তা । তার সৎভাব ও কর্ম দক্ষতায় পাল্টে গেছে দোহার উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও সার্বিক চিত্র তিনি দোহারকে তার সন্তানের মত আগলিয়ে রেখেছে, উপজেলার প্রতিটি দফতরের কর্মকান্ডে ফিরে এসেছে গতিশীলতা ও স্বচ্ছতা। তার উল্লেখযোগ্য কর্মকান্ডের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রশংসা কুড়িয়েছেন পদ্মা নদীর ইলিশ রক্ষা মৌসুমে পদ্মা নদীতে দিন রাত অভিযান পরিচালনা করা। দোহারে তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগের মধ্যে রয়েছে শেখ রাসেল প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা । এ ছাড়া দোহারের বিভিন্ন বাজারে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনে রাখতে তার অভিযান ছিল ধারাবাহিক।উপজেলার হতদরিদ্র ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাড়িঁয়ে সকল প্রকার সেবা প্রদান করেন তিনি। লকডাউনের সময়েও তিনি দোহারে প্রবাসীদের হোম কোয়ান্টাম নিশ্চিত করেছে এবং নিয়মিত পুরু দোহারে রাত দিন নিরলস ভাবে কাজ করেছে। বিভিন্ন কর্মদক্ষতার কারনে উপজেলা পর্যায়ে ঢাকা জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। উল্লেখ যোগ্য গত (৪জুন ) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়ার সহকারি সচিব এ সংক্রান্ত আদেশ জারিতে গাজীপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন আফরোজা আক্তার রিবা।
আফরোজা আক্তার রিবা’র জন্ম হয় নরসিংদী জেলার মনোহরদী থানার গোতাশিয়া গ্রামে। তার বাবা মোঃ শহিদ উল্লাহ ভুঁইয়া ও মাতা লুৎফুন্নাহার। তিনি গোবিন্দপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষা জীবন শুরু করেন। শিক্ষা জীবনে তিনি নরসিংদীর হাড়িসাংগার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০০০ সালে এসএসসি, রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজ থেকে ২০০২ সালে এইচএসসি পাস করেন। এরপর তিনি ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে। পড়াশোনা শেষ করে ২৯তম বিসিএস-এর মাধ্যমে তিনি সরকারি চাকুরিতে যোগদান করেন।
আফরোজা আক্তার রিবা দোহার প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বলেন, করোনার এই সময়ে দোহার উপজেলার জন্য প্রচুর কাজ করেছি। নিজের জীবনের পরোয়া করিনি। এই পদোন্নতি আমাকে আরো বেশি কাজ করার সুযোগ করে দিল। আমি যেন এই দেশের কল্যানে দেশের মানুষের জন্য সব সময় কাজ করে যেতে পারি । এ সময় সংশ্লিষ্ট সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।
সে সময় উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভুমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র,ফজলুর রহমান ফাউন্ডেশনের মহা-ব্যবস্থাপক আব্দুর রউফ,দোহার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের আহবায়ক রজ্জব আলী মোল্লা,দোহার প্রেসক্লাবের সভাপতি কামরুল হাসান,সম্পাদক মাহবুবুর রহমান টিপু,ঢাকা প্রেসক্লাবের কার্যকরী সদস্য অলি আহম্মেদ, সহ-সম্পাদক শেখ সোহেল রানা,অর্থ সম্পাদক মো.শাহজাহান,দৈনিক আগামীর সময় পত্রিকার উপ-সম্পাদক আবুল হাসেম ফকির,সাপ্তাহিক নববাংলা পত্রিকার সহ-সম্পাদক কাজী জোবায়ের আহম্মেদ,একুশের মিডিয়া ও দোহার বার্তার বিশেষ প্রতিনিধি জাকির হোসেন,খবর ৩২ডট.কম অনলাইন পোর্টালের সম্পাদক মোস্তফা কুদ্দুস, প্রতিদিনের সংবাদের প্রতিনিধি মহিদুল ইসলাম পলাশ সহ আরো অনেকে।

Comments

comments