দোহারে পিয়াজের মূল্যে ঝাজঃ অভিযানে প্রশাসন 

354
দোহারে পিয়াজের মূল্যে ঝাজঃ অভিযানে প্রশাসন 

দোহার নবাবগঞ্জ উপজেলায় ভারত থেকে পিয়াজের আমদানি বন্ধের ঘোষণার সাথে সাথে অতিরিক্ত  মূল্য নিচ্ছেন অসাধু ব্যবসায়ী। আর এতে ভোক্তারা হয়ে পড়েছেন নিরুপায়।

মংগলবার দোহারের প্রাণকেন্দ্র জয়পাড়ায় বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র সরেজমিনে বাজার পরিদর্শনে গিয়ে দেখেন যে সাধারন ভোক্তারা বেশি মূল্য দিয়ে পিয়াজ কিনছে কি না?  এছাড়া বাজারের কোন আড়ৎদার বা খুচরা বিক্রেতারা কোন সিণ্ডিকেট করে বেশি মূল্যে বিক্রি করছে কি না। ক্রেতাদের সাথে কথা বলে জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র বুঝতে পারেন,  জয়পাড়া সহ আশে পাশের বাজারে অযৌক্তিক ভাবে কিছু অসাধু বিক্রেতা গুজব ছড়িয়ে ও সিন্ডিকেট করে বাজারে পেয়াজের মূল্য বৃদ্ধি করছে।

নিউজ৩৯ থেকে জয়পাড়া বাজারের খুচরা ব্যবসায়ী আলিফ বলেন, আমরা কেজিতে পূর্বের তুলনায় কিছুটা বেশি টাকা করে রাখি পিয়াজের কেজিতে।

এবিষয়ে খুচরা ব্যাবসায়ী সুমন সাহা জানান , আমরা আড়ৎদারের কাছ থেকে পিয়াজ যে দামে ক্রয় করে, তার থেকে বেশি দামে বিক্রয় করতে হয়। এখন স্বাভাবিকভাবেই আড়তদার বেশিদামে বিক্রি করলে, আমাদেরও একটু বেশি দামেই খুচরা বিক্রি করতে হয়।

অন্য খবর  আজিজুল হক বোরহানের পক্ষ থেকে শামীমা রাহিম শীলাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা

নিউজ৩৯ এর এই প্রতিবেদক সরেজমিনে গিয়ে দেখেন, পিয়াজের কেজি ইন্ডিয়ান – ৬০ টাকা, দেশী পিয়াজের কেজি ৭০-৮০ টাকা কেজি বিক্রয় করা হচ্ছে। বাজারে পেঁয়াজের কোন কমতি নেই। কিন্তু ভারত পিয়াজ রপ্তানি বন্ধ করায় পিয়াজ মজুদদার করা হচ্ছে এবং অধিক মুনাফার আশায় বেশিদামে বিক্রি হচ্ছে সাধারণ ক্রেতাদের ঠকিয়ে।

নিউজ৩৯ কে দোহার উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র বলেন, বাজার আমাদের সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ে থাকবে। কেউই সিন্ডিকেট বা অবৈধ কিছু করতে চাইলে, কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করা হবে।

এসময় জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা ক্রয়মূল্য থেকে ৫/৭ টাকা বেশি মূল্যে পেয়াজ বিক্রি করবেন। অতিরিক্ত মূল্যে পেয়াজ বিক্রি করবেন না। যদি কোন পাইকার বা খুচরা ব্যবসায়ী বেশি মূল্য রাখে, তাহলে তার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই অভিযানে সহযোগীতা করে দোহার থানা পুলিশ প্রশাসন।

Comments

comments