দোহারে ইউপি সদস্যের টাকার বিনিময়ে সরকারি জমি বন্টন

583
দোহারে ইউপি সদস্যের টাকার বিনিময়ে সরকারি জমি বন্টন

ঢাকার দোহার উপজেলার নয়াবাড়ি ইউপি সদস্য আরব আলী, সরকারি জমি দখল করে টাকার বিনিময়ে অবৈধভাবে তার আত্মীয়সহ অন্যদের মাঝে বণ্টন করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায়, নয়াবাড়ি ইউনিয়নের দক্ষিণ বাহ্রা মৌজার আর এস- ৫৪২ ও ৯১৯ দাগ নং এ মোট ৫৬ শতাংশ সরকারি জমির ৩৫ শতাংশ জমি ইউপি সদস্য ও ড্রেজার ব্যবসায়ী আরব আলী দখল নিয়ে টাকার বিনিময়ে তারই চাচাতো ভাই ইবাদুল ইসলাম ও পাশের এলাকার মো. দুলাল হোসেন নামে দুই ব্যক্তিকে বণ্টন করে দিয়েছেন। এছাড়া আরো কয়েকজনকে জমি দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। এদিকে দখলকৃত জমি ছেড়ে দিতে তিন দিনের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রশাসন। এমন ঘটনায় চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে নয়াবাড়ি ইউনিয়নে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নয়াবাড়ি ইউনিয়ন ভূমি অফিস সংলগ্ন ৩৫ শতাংশ জমিটির সম্পূর্ণটিই দখল হয়ে গেছে। ইউপি সদস্য আরব আলীকে টাকা দিয়ে ১২দিন আগে বাড়ি তুলেছেন বলে জানান দখলকারী ইবাদুল ইসলামের স্ত্রী রোকসানা আক্তার। সরকারি খরচে জমি ভরাট হলেও আরব আলীর ব্যক্তিগতভাবে ৬৫ হাজার টাকা দাবির প্রেক্ষিতে ২০ হাজার টাকা পরিশোধ করেছেন বলে জানান ইবাদুল ইসলাম।

অন্য খবর  পরকীয়ার বলীঃ ১৬ দিনেও মামলা নেয়নি পুলিশ

অন্য দখলকারী শেখ দুলালের স্ত্রী রাজিয়া বলেন,আরব আলীকে মাটি ভরাটের জন্য ২২ হাজার টাকা দিয়ে এখানে আজীবনের জন্য থাকার অনুমতি পেয়েছেন তিনি।

এবিষয়ে অভিযুক্ত আরব আলী বলেন, সরকারি জমি খালি পরে আছে তাই তাদের থাকতে দিয়েছি। সরকার চাইলে ছেড়ে দেয়া হবে। টাকা দেয়ার বিষয়ে দখলকারীদের সুস্পষ্ট বক্তব্য থাকলেও সরকারি জমিতে বালু ফেলে কিভাবে টাকা নিলেন এবিষয়ে তিনি বলেন, আমি কোন টাকা নেইনি।

ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মেহেদী হাসান বলেন, ইউপি সদস্য আরব আলীর ভূমি দস্যুর কাজ করেছেন। তিনি আরও বলেন, উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি জ্যেতি বিকাশ চন্দ্রের নির্দেশে দখলকারীদের আগামী তিন দিনের মধ্যে সরকারি জমি ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র বলেন, সরকারি জমি দখলের অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তিন দিনের মধ্যে দখলকারীদের জমি ছেড়ে দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments

comments