দোহারের মৈনটে পিকনিকে এসে পানিতে ডুবে যুবকের মৃত্যু

92
মৈনট

ঢাকার দোহার উপজেলায় মিনি কক্সবাজার খ্যাত মৈনট ঘাটের পদ্মা নদীর পানিতে ডুবে মোঃ রবিন (১৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। রবিন ঢাকার জুড়াইন এলাকার মোঃ রফিক হোসেন (৪৫) এর ছেলে।

নিহত রবিনের বাবা রফিক জানায়, শুক্রবার সকালে পিকনিকের উদ্দেশ্যে রবিন তার ৪০ জন বন্ধুর সাথে দোহারের এই মৈনট ঘাটে আসে। সারাদিন শেষে বিকেল সাড়ে ৪ টার সময় রবিনের বন্ধুরা আমায় ফোন দিয়ে বলে পদ্মায় গোসল করতে নেমে সবাই উঠলেও রবিন উঠেনি। আশেপাশে খোজ করেও রবিনের কোনো খোজ পাওয়া যায়নি। খবর পেয়ে আমি সাথে সাথে রওনা দিয়ে রাত ৯ টার সময় এইখানে মৈনট ঘাটে আসি। সারারাত খোজাখোজির পরে সকালে কার্তিকপুর ফাড়ির পুলিশ ও দোহার ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে ডুবুরী দল এসে প্রায় ঘন্টা খানিক খোঁজাখুঁজির পর সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে পানিতে থেকে রবিনের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

রবিন তার বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। সে একজন মটর মেকানিকস বলে জানায় তার বাবা রফিক হোসেন। এ দিকে একমাত্র সন্তানকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে গিয়েছেন রবিনের মা।

অন্য খবর  দোহার ও নবাবগঞ্জে রথযাত্রা অনুষ্ঠিত 

কার্তিকপুর পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এস আই নুরুল হুদা বলেন, পানিতে ডুবে যেনো কারো কোনো প্রাণহানি না হয় সে জন্য আমরা সর্বদা এই মৈনট ঘাটে ভ্রমণকারী সকলে পদ্মা নদীর পানির গভীরতা সম্পর্কে অবগত করি। পাশাপাশি আমাদের পুলিশ ফাড়ি ও দোহার প্রশাসনের পক্ষ থেকে পদ্মায় নেমে গোসল করা থেকে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই আমরা কার্তিকপুর ফাড়ি পুলিশ সব সময় এই মৈনট ঘাটের দিকে নজড় রাখে। তবুও প্রাশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে অনেকেই গোসল করতে গিয়ে গভীর পানিতে তলিয়ে যায়। ফলে প্রাণহানির মতো ঘটনা ঘটে। আগামীতে যেনো আর কারো কোনো প্রাণহানির ঘটনা না ঘটে সে দিকে কঠোর ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

Comments

comments