দোহারের প্রসাশনের অভিযানের পরও থামছেনা বালু ব্যবসায়ীরা

71
দোহারের প্রসাশনের অভিযানের পরও থামছেনা বালু ব্যবসায়ীরা

শরীফ হাসান নিউজ৩৯ঃ ঢাকার দোহারের জামালচর নাগের কান্দা গ্রামে আজিমউদ্দিন নামে এক ব্যাক্তি সরকারি খালের পাশ হতে অবৈধভাবে সরকারি জমির মাটি ড্রেজার দিয়ে কেটে বিক্রি করে চলছে।
সরেজমিন নদীর পার এলাকায় গিয়ে দেখা মিললো নদীর পাড় ঘেঁষে সরকারি জমির মাটি কেটে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করছেন।
এ ভাবে নদীর পাড় হতে মাটি কেটে বিক্রি করলে নদী পাড়ের সাধারণ মানুষের বাড়ি ঘড় নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাবে বলে ভুক্তভোগী কয়েকটি পরিবার জানান সাংবাদিকদের।
তারা প্রশাসনের নিকট এর সমাধান চাচ্ছে।

ড্রেজার ব্যাবসায়ীর সাথে এ ব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এটা আমার জমি। আর আমার জমিতে আমি মাটি কাটতেছি।

উল্লেখ ঢাকার দোহার উপজেলার চর লটাখোলা হাতেমের কুম পাড় এলাকায় অবৈধভাবে কিছু দিন যাবত সরকারি খালের জমির মাটি ড্রেজার দিয়ে উওোলন করে অবাদেই বিক্রি করে যাচ্ছিলেন জামালচর এলাকার সোহেল রানা (৩০)(পিতা হাসমত তালুকদার) এবং নাগেরকান্দা গ্রামের আজিমউদ্দিন (৬০) (পিতা: শেখ আমির উদ্দীন) নামে দুই ব্যক্তি।

২৩ ডিসেম্বর বুধবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২ ঘন্টা মোবাইল কোটের অভিযানের পর অবৈধভাবে সরকারি খালের জমির মাটি কাটা ও বিক্রির অপরাধে বালু ও মাটি ব্যবসায়ী সোহেল রানা ও তার শ্বশুর আজিমউদ্দিন কে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০অপরাধ ৫ এর ১ ধারায় শাস্তি ১৫ এর ১ ধারায় বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ অপরাধ ৫ এর ১ ধারায় নগদ ৫০ হাজার করে ২ জন কে ১ লক্ষ টাকা টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫ এর ১ ধারায় ২ জন কে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দন্ডিত করা হয়েছে।

অন্য খবর  দোহারে করোনার টিকা নিলেন ইউএনও ও ওসি

মোবাইল কোট পরিচালনা করেন ভাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট চীফ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্টেট সহকারী কমিশনার ভূমি জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র।

সে সময় সহযোগিতা করেন দোহার থানা এ এস আই মোমিন ও থানা পুলিশ ফোর্স।

Comments

comments