দেশের অর্থনীতিতে বেক্সিমকোর অবদান অনস্বীকার্য: টিআইবি

24

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) মনে করে ব্যক্তিমালিকানাধীন খাতে শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেশের অর্থনীতিতে বেক্সিমকো লিমিটেডের অবদান অনস্বীকার্য। বিশেষ করে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে  বেক্সিমকোর সক্রিয় ও বহুমুখী ভূমিকা যৌক্তিক কারণেই সর্বজনবিদিত। শুধু তাই নয়, জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশলের অন্যতম ক্ষেত্র ব্যক্তিমালিকানাধীন খাতের নেতৃস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে বেক্সিমকোর ব্যবসায়িক মডেল ও চর্চা এ খাতে শুদ্ধাচার প্রতিষ্ঠায় অন্য ছোট-বড় সকল প্রতিষ্ঠানের অনুকরণীয় হবে।

টিআইবি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারপারসন সুলতানা কামাল বেক্সিমকোর চেয়ারম্যান সোহেল এফ রহমানকে লেখা এক পত্রে এই মনোভাব ব্যক্ত করেছেন। বেক্সিমকো গ্রুপের ঋণ চাহিদা ও পুনঃতফসিলিকরণের প্রেক্ষিতে টিআইবি বাংলাদেশ ব্যাংকের সমালোচনা করে সংবাদ মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দেয়। এরই প্রেক্ষিতে বেক্সিমকো গ্রুপের চেয়ারম্যান টিআইবিকে পত্র দিয়েছিলেন।

সুলতানা কামাল তার পত্রে বলেছেন, বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান সম্পর্কে নেতিবাচক কোনো মন্তব্য করা টিআইবি’র উদ্দেশ্য ছিল না। টিআইবি দেশের সার্বিক ব্যাংকিং খাতের সংকটাপন্ন অবস্থায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রত্যাশিত ভূমিকার ঘাটতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। জনস্বার্থে নিয়োজিত অন্য সকল প্রতিষ্ঠানের মতো বাংলাদেশ ব্যাংক  যখন তার নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা যথাযথভাবে পালনে ব্যর্থ হওয়ার মুখোমুখি হয় তখন তার সমালোচনা করা এবং কার্যকর পদক্ষেপের দাবি জানানোকে টিআইবি নৈতিক কর্তব্য বলে মনে করে। সুলতানা কামাল তার পত্রে এটাও উল্লেখ করেছেন।

অন্য খবর  এত ‘বাধা’ তবু বিশ্বের ৩২তম বৃহৎ অর্থনীতি বাংলাদেশ

টিআইবি’র তরফে এটাও বলা হয়, কারো প্রতি ইঙ্গিত করা সংস্থাটির উদ্দেশ্য নয়। সংস্থাটি এটাও বিশ্বাস করে দেশের অর্থনীতিতে অন্য যেকোনো প্রথিতযশা প্রতিষ্ঠানের মতো বেক্সিমকো গ্রুপের অবদান ইতিবাচক। আমরা সবসময় যথাযথভাবে এর গুরুত্ব দিয়ে থাকি।

Comments

comments