দলে বিশৃঙ্খলা দেখলেই ‘অ্যাকশন’: ওবায়দুল কাদের

27

জাতীয় নির্বাচনের আগে গুরুত্বপূর্ণ এই সময়ে বিশৃঙ্খলা বরদাশত করা হবে না বলে দলের নেতা-কর্মীদের সতর্ক করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, “বিশৃঙ্খলা করবেন না। বিশৃঙ্খলাকারীদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন  শুরু হয়ে গেছে। তিন দিনের মধ্যেই শোকজ যাবে। দিনাজপুর যাবে, রাজশাহী যাবে, বরগুনা যাবে, সিলেট যাবে।”

বিভিন্ন স্থানে আওয়ামী লীগের কোন্দলের খবর প্রকাশের প্রেক্ষাপটে শনিবার ট্রেনে উত্তরাঞ্চল সফরের সময় টাঙ্গাইল রেল স্টেশনে যাত্রাবিরতির সময় এক পথসভায় এই হুঁশিয়ারি দেন কাদের।

তিনি নেতা কর্মীদের সতর্ক করে আরও বলেন, “ঘরের মধ্যে ঘর বানানোর চেষ্টা করবেন না। মশারির মধ্যে মশারি টানানোর চেষ্টা করবেন না। শেখ হাসিনার অ্যাকশন ডাইরেক্ট অ্যাকশন।”

সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থেকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান তিনি।

সকালে একদল কেন্দ্রীয় নেতাকে নিয়ে নীলফামারীগামী নীলসাগর এক্সপ্রেসে চেপেছেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী কাদের।

পথে টাঙ্গাইলের পর পাবনার ঈশ্বরদী, নাটোর, বগুড়ার শান্তাহার, জয়পুরহাট, জয়পুরহাটের আক্কেলপুর, দিনাজপুরের বিরামপুর, ফুলবাড়ি, পার্বতীপুর ও নীলফামারীর সৈয়দপুর স্টেশনে পথসভা করার কথা রয়েছে তার।

আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, স্বাভাবিক সময়ে এই ট্রেনের যাত্রাবিরতি ৩ থেকে ৪ মিনিট হলেও পথসভা উপলক্ষে নীলসাগর এক্সপ্রেসের যাত্রাবিরতি হবে ১০ মিনিট। ফলে এই ট্রেনের যাত্রীদের শনিবার গন্তব্যে পৌঁছতে দেরি হবে।

অন্য খবর  আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতেই জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্র: ওবায়দুল কাদের

টাঙ্গাইলের পথসভায় স্থানীয়দের দাবির পরিপেক্ষিতে মন্ত্রী কাদের বলেন, “একটু অপেক্ষা করুন। ঢাকা-টাঙ্গাইল অফিসগামী ট্রেনও চালু হবে।”

উত্তরাঞ্চলে এই সফরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে রয়েছে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপ দপ্তর বিপ্লব বড়ুয়া।

Comments

comments