তরুনদের ভাবনা: গুটিকয়েক মানুষ সচেতন হলেও বেশিরভাগ মানুষই অসচেতন

89
বেশিরভাগ মানুষই অসচেতন

Covid 19 কে কিছু সংখ্যক মানুষ সচেতনতার চোখে দেখলেও বেশির ভাগ মানুষ এই ভাইরাস নিয়ে কোনো চিন্তা করছে না। এর ফলাফল নিয়ে মাথা না ঘামিয়েই যেমনভাবে মন চায় তেমনভাবেই চলাফেরা করছে। বর্তমানে এর অবস্থা খুবই ভয়াবহ। ধীরে ধীরে কিন্তু ভয়াবহ রূপে বাড়তেছে। পড়াশোনার উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়তেছে। প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা অনলাইনে পড়ালেখা করলেও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা পিছিয়ে যাচ্ছে, ফলাফল তাই ভয়াবহ হতে পারে। ফলে চাকরি ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দিতে পারে ভবিষ্যতে বেকারত্ব আরোও বাড়তে পারে। দোহার নবাবগঞ্জ এ করোনার প্রভাব খুবই ভয়াবহ হবে। জানি না কী হতে যাচ্ছে। কারণ গুটিকয়েক মানুষ সচেতন হলেও বেশিরভাগ মানুষই অসচেতন।

কাজী তাজরীন অর্পা
ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।
বলমন্তচর, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

করোনা ভাইরাসের থাবায় আক্রান্ত গোটা বিশ্ব। সর্বত্র আতঙ্ক আর উৎকণ্ঠা। বাংলাদেশে গত ৩-৪ মাসে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কয়েক হাজার মানুষ। এরইমধ্যে দোহার-নবাবগঞ্জে প্রতিনিয়ত করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে । অপ্রয়োজনীয় আড্ডাও জমায়েত এখনো বন্ধ হয়নি। বাজার দোকানপাটগুলোতে কোন ধরনের সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে না। এদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দীর্ঘকাল বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এ ভয়ংকর পরিস্থিতিতে তারা মানসিকভাবে বিষাদগ্রস্ত হয়ে পড়ছে। ভবিষ্যতে বেকারত্বের হার বাড়বে বলেও আশা করা যাচ্ছে। যদি দোহার-নবাবগঞ্জের মানুষ এখনো সচেতন না হয় তবে আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যা এক ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করবে। এই সময় বাড়িতে কিছুটা একঘেয়েমি লাগতেই পারে। এক্ষেত্রে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করে বই পড়ুন, যার যার ধর্মীয় পাঠে ব্যস্ত থাকুন, পরিবারকে সময় দিন, প্রচুর পানি পান করুন এবং নিয়মিত ব্যায়াম করে মানসিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ থাকার চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন আপনার সচেতনতার কারণে বেঁচে যেতে পারে আপনার পরিবার ও প্রিয়জনদের জীবন।

অন্য খবর  মসজিদে জামাতে নামাজের অনুমতি

সুমাইয়া রহমান
অর্থনীতি বিভাগ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
গালিমপুর, নবাবগঞ্জ, ঢাকা।

Comments

comments