ঢাকা জেলা বিএনপির নতুন কমিটির সভায় হাতাহাতি, অবরুদ্ধ নেতারা

71

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টন ভাসানী ভবনে ঢাকা জেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটির পরিচিতিসভায় ঢাকা জেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পদবঞ্চিতদের হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। হৈ-হট্টগোল ও চরম উত্তেজনার মধ্যে একপর্যায়ে সভা পণ্ড হয়ে যায়। নতুন কমিটির নেতাসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের অবরুদ্ধ করে রাখেন পদবঞ্চিতরা। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমানের গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

গত ২৭ মার্চ মো. সালাউদ্দিনকে সভাপতি ও খন্দকার আবু আশফাককে সাধারণ সম্পাদক করে ২৬৬ সদস্যের ঢাকা জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। অভিযোগ উঠেছে- এই কমিটিতে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের অনুসারীদের প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। বাদ পড়েছেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমানের সমর্থকরা। তাই নবগঠিত কমিটির পরিচিতিসভায় এ ঘটনার প্রতিবাদ জানান পদবঞ্চিতরা।

একপর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় আমানের সমর্থকরা ভাসানী ভবনের দরজা ভেঙে ফেলার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে ঢাকা জেলা বিএনপির এক নেতা আহত হন। সভা পণ্ড হয়ে যায়।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নয়াপল্টন ভাসানী ভবনে নতুন কমিটির নেতাদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এ সময় আমানউল্লাহ আমানের সমর্থক ‘অবৈধ কমিটি, মানি না মানব না’সহ বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের উদ্বোধন

নতুন কমিটির পরিচিতিসভায় বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় চৌধুরী, মো. সালাউদ্দিন ও খন্দকার আবু আশফাকসহ ঢাকা জেলা বিএনপি নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ঢাকা জেলা কমিটিতে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের নির্বাচনী এলাকা থেকে ৭৭ জন, দেওয়ান সালাউদ্দিনের এলাকা থেকে ৭২, আশফাকের এলাকা থেকে ৭৮, আমানউল্লাহ আমানের এলাকা থেকে ১৭, ধামরাই থেকে ২০ জনকে রাখা হয়েছে। কমিটিতে আমানপন্থীদের সংখ্যা কম থাকায় কমিটি ঘোষণার পর থেকে ক্ষোভে ফুঁসছিল একটি অংশ। আজ তার বহির্প্রকাশ ঘটল।

Comments

comments