টেস্টে মিসবাহ-ইউনিসবিহীন নতুন যুগে পাকিস্তান

163
টেস্টে মিসবাহ-ইউনিসবিহীন নতুন যুগে পাকিস্তান

টেস্ট ক্রিকেটে নতুন এক যুগে পা রাখতে যাচ্ছে পাকিস্তান। যে দু’জনকে ছাড়া গত কয়েক বছরে তাদের টেস্ট একাদশই কল্পনা করা যেত না, সেই মিসবাহ-উল-হক আর ইউনিস খান এখন সাবেকদের কাতারে। এই দুই ব্যাটিং কিংবদন্তীকে হারিয়ে নতুন অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের অধীনে টেস্টের নবযাত্রা শুরু হচ্ছে আনপ্রেডিক্টেবলদের। আবুধাবিতে কাল থেকে মাঠে গড়াচ্ছে শ্রীলংকা ও পাকিস্তানের মধ্যকার প্রথম টেস্ট।

গত সাত বছরে মিসবাহ-ইউনিস যুগলবন্দীর উপর ভর করেই এগিয়েছে পাকিস্তানের টেস্ট ক্রিকেট। দেশের পক্ষে দু’জন মিলে খেলেছেন ১৯৩টি টেস্ট। করেছেন ১৫ হাজার ৩৩১ রান, সেঞ্চুরি ৪৪টি। একসঙ্গে খেলা টেস্টে এই যুগলের আছে ১৫টি সেঞ্চুরি জুটি।

এমন দু’জন ব্যাটিং ভরসার অভাব সহসাই পূরণ হবে না, সেটা মেনেই নিচ্ছেন সরফরাজ আহমেদ। লংকানদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টকে সামনে রেখে পাকিস্তানী অধিনায়ক বলেছেন, ‘অবশ্যই তারা যে শূন্যতা তৈরি করে গেছেন, সেটা পূরণ করা সহজ হবে না। তারা আমাদের ব্যাটিংয়ের মেরুদণ্ড ছিলেন। তবে আমাদের এখান থেকে এগিয়ে যেতে হবে।’

ইউনিস খানকে পাকিস্তান ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন মনে করা হয়। টেস্টে দেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি (১০ হাজার ৯৯ রান)।

অন্য খবর  ‘গুরুত্বপূর্ণ’ বৈঠকে সৌদি আরব গেছেন শাহবাজ শরীফ

ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের ফিল্ডিংটাও ভীষণ মিস করবে পাকিস্তান। বিশেষজ্ঞ স্লিপ ফিল্ডার হিসেবে সুখ্যাতি কুড়ানো ইউনিস ১১৮ টেস্টে ধরেছেন পাকিস্তানের পক্ষে রেকর্ড ১৩৯টি ক্যাচ।

অপরদিকে, পাকিস্তানের মিডল অর্ডারে আস্থার অপর নাম ছিলেন মিসবাহ। তার নেতৃত্বেই টেস্ট র্যাংকিংয়ে এক নাম্বারে উঠে এসেছিল আনপ্রেডিক্টেবলরা।

Comments

comments