জয়পাড়া স্বর্ণপট্টিতে ৭৩ ভরি স্বর্ণসহ ২০০ ভরি রুপার দুর্ধর্ষ ডাকাতি, আহত ৫

    146

    জোবায়ের শরিফঃ রোববার দিবাগত রাত ২টায় দোহার উপজেলার জয়পাড়া বাজারের নূন্যতম চারটি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় ডাকাতদল স্বর্ণালঙ্কারসহ নগদ টাকা নিয়ে যায় বলে জানা গেছে।ডাকাতিকালে ডাকাতদল স্বর্ণ ৭৩ ভরি, রুপা ২০০ ভরি, টাকা ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা। তাদের গলার স্বরে স্থানীয়সহ নদীর দূর্বোধ্য আঞ্চলিক ভাষার টান রয়েছে। এদের মধ্যে দুজন মুখোশধারী ছিলো।

    ডাকাতির শিকার দোকানগুলো হচ্ছে- জয়পাড়া বাজারের প্রদীপ পালের মালিকানাধীন পবিত্র অলঙ্কার নিকেতন, ইসমাইল হোসেনের হাজী অলঙ্কার বিতান, অখিল পালের শশধর অলঙ্কার নিকেতন ও স্বাধীন অলঙ্কার।

    জানা গেছে, রাত ২টার দিকে আনুমানিক ৮/১০ জনের একদল ডাকাত উপজেলার জয়পাড়া বাজারে ঢুকে বিভিন্ন স্বর্ণের দোকানের সাটারের তালা ভেঙে নগদ টাকা, রূপা ও প্রচুর স্বর্ণালংকার নিয়ে যায় ডাকতদল।এসময় এক দোকানী বাধা দিলে, ডাকাতদের আক্রমণের মুখে সে-সহ পাচজন গুরুতর আহত হয়। পরবর্তীতে তাকে দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।ডাকাতি করে ডাকাতরা ৩ রাউন্ড ফাকা ফায়ার করে নির্বিঘ্নে স্পীড বোটে করে পদ্মা নদীর দিকে চলে যায়।স্পীড বোট ছিলো ৩ থেকে ৪টি।  এসময় জয়পাড়া বাজার মসজিদ থেকে সাহায্যার্থে মাইকিং করা হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পূর্বেই ডাকাতদল পালিয়ে যায় বলে জানা গেছে।

    অন্য খবর  দোহার-নবাবগঞ্জে উৎসবমুখর পরিবেশে স্বেচ্ছাসেবকলীগের পুণঃমিলনী অনুষ্ঠিত

    ওসি সাজ্জাদ নিউজ৩৯কে বলেন, “মধ্যরাতে সংঘবদ্ধ কয়েকজন ডাকাত জয়পাড়া বাজারের কয়েকজন পাহারাদারকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বেঁধে ফেলে।পরে পর্যায়ক্রমে তারা ওই চারটি স্বর্ণের দোকানের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে সিন্ধুকের তালা ভেঙে রুপাসহ বেশ কয়েক ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা লুট করে নেয়।”এ সময় মসজিদের মাইকে ঘোষণা শুনে পুলিশ ও স্থানীয় জনতা এগিয়ে এলে ডাকাত দল বোমা বিস্ফোরণ করে নদী পথে স্পিডবোটে করে পালিয়ে যায় বলে জানান তিনি।

    দোহার থানা পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নিয়েছে। তারা দ্রুততম সময়ে ডাকাতদল গ্রেফতারে সচেষ্ট রয়েছে।

    Comments

    comments