জয়পাড়া বাজারে আগুনঃ মসজিদের আহবানে রক্ষা পেলো শত কোটি টাকার সম্পত্তি

73
জয়পাড়া বাজার

জোবায়ের শরিফঃ দোহার উপজেলার প্রাণকেন্দ্র জয়পাড়া বাজারের কাঠ ও ফার্নিচার পট্টিতে বুধবার ভোর ৫টায় আগুন লাগে। বাজার মসজিদের মাইকের আহবানে সাড়া দিয়ে ঘটনাস্থলে শত শত জনসাধারণ ও ফায়ার সার্ভিস আগুন নেভানোর কাজে অংশ দিলে রক্ষা পায় প্রায় শত কোটি টাকার সম্পত্তির কাঠ, ফার্নিচার ও স’মিল। তাতক্ষণিক ক্ষতির পরিমাণ অর্ধ কোটি টাকা। ৬টি দোকান সম্পূর্ণভাবে ভস্মীভূত হয়। তবে কেউ হতাহত হয়নি।

স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ী আব্দুল আলীম টিপু নিউজ৩৯ কে বলেন, কাঠ বাজারের পশ্চিম পাশে মওলা স’মিলের সাথের মোস্তফার চা’য়ের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে আমাদের ধারণা। আগুন লাগার স্থানটি ফার্নিচার কারখানা, স্পিরিট কেমিক্যাল ও স’মিলের গুদাম। আমরা সবাই মসজিদের মাইকের আহবানে জানতে পেরে দ্রুত উপস্থিত হই এবং যে যার মতো পানি নিয়ে আগুন নেভানোর কাজে যোগ দেয়।

জয়পাড়া বাজারে পানির উৎস নেই, কল ছাড়া আর বড় কোন রাস্তা না থাকার কারনে ফায়ার সার্ভিসের আগুন নিভাতে অনেক সমস্যা ও কষ্ট করতে হয়েছে। এছাড়া পরে তাদেরকে নদী থেকে পানি টানতে হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মকতা হক নিউজ৩৯কে জানান, যে আমরা খবর পাওয়ার সাথে সাথে চলে আসি আর সে সময় থেকে আমরা আগুন নিভানোর কাজ শুরু করি আর আমাদের আগুন নেভাতে অনেক ধরনে সমস্যা হয় এর মধ্যে অন্যতম হল রাস্তা বড় নয় আর পানির কোন উৎস নেই আর নদীর পাশ দিয়ে যে রাস্তাটি আছে সে টি দিয়ে আমরা গাড়ি টুকাতে পারলে আরো কম ক্ষয়ক্ষতি হত।

অন্য খবর  কেরানীগঞ্জে নৌকার টিকিট পেলেন শাহীন আহমেদ

জয়পাড়া বাজার

সেখান দিয়ে কাঠ ব্যবসায়ীরা গাছ ফেলে রেখে রাস্তাটি বন্ধ করে রেখেছে সে জন্য আমরা ওখান দিয়ে টুকতে পারি নাই আর আমাদের গাড়িতে পানি থাকে ২০০০ লিটার আর রাস্তা বড় হওয়া করনে পানি গাড়ি থেকে আসতে আসতে দ্রুত নিভানোর সম্ভব হয় নাই আমরা ৬ঃ ৪০ আগুন নিভাতে সক্ষম হই আর এখানে ৪টি দোকানের ক্ষতি হয় এতে কেউ হতাহত হয় নাই। খতির পরিমান এখন আমরা বলতে পারতেছিনা আর আমাদের প্রাথমিক ধারনা এই অগ্নিকান্ড বিদ্যুৎ এর শর্ট সার্কিট থেকে হয়েছে আমরা তদন্ত করবো তারপর সঠিকটা বলতে পারবো।

জয়পাড়া বাজার মসজিদ মোয়াজ্জেম মাওলানা শহিদুল ইসলাম নিউজ৩৯ কে জানায়, আগুন লাগার সাথে সাথে ইমাম হান্নান সাহেব ফোন দেয় যে, জয়পাড়া বাজারে কাঠপট্টিটে আগুন লেগেছে; তাড়াতাড়ি মাইকে বলে সাহায্যের আহবান জানান।

ঘটনাস্থলে জনসাধারণ ছাড়াও দোহার উপজেলা প্রশাসন, দোহার থানা পুলিশ, ফায়ারসার্ভিসের একটি ইউনিট, আওয়ামী লীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন সুরুজ সরাসরি উপস্থিত থেকে আগুন নেভাতে ও চুরি রোধে সহায়তা করেন।

Comments

comments