জয়পাড়া কলেজ সরকারি হবে, শুধু সময়ের ব্যাপার মাত্রঃ সালমান এফ রহমান

372
জয়পাড়া কলেজ সরকারি হবে, শুধু সময়ের ব্যাপার মাত্রঃ সালমান এফ রহমান

জয়পাড়া কলেজ সরকারি হবে, শুধু সময়ের ব্যবধান মাত্র। আমি ওবায়দুল কাদেরকে প্রধান অতিথি করে দোহারে নিয়ে আসার সময় কথা দিয়েছিলাম জয়পাড়া কলেজ সরকারি করন করা হবে। আমি ভুলি নাই। শুধু সময়ের ব্যবধান মাত্র। আমি ঘোষনা দিয়ে যাচ্ছি, যতদিন জয়পাড়া কলেজ সরকারি করন না হবে ততদিন আমি জয়পাড়া কলেজের যেকোন চাহিদা নিজের তহবিল থেকে হলেও পুরন করবো। জয়পাড়া কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমানকে দেয়া এক ছাত্র সংবর্ধনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সালমান এফ রহমান এই কথা বলেন।

সংবর্ধনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সালমান এফ রহমান বলেন, যদি ৯ বছর আগে যখন আমি জেল থেকে বের হই, তখন কেউ যদি বলতো আজ বাংলাদেশ এই জায়গায় আসবে, আমি বিশ্বাস করতাম না। কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য আজ দেশ এই স্থানে এসে পৌছেছে। দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। এই মহাসড়কে দেশকে রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। তাই যেই আসুক আগামী নির্বাচনে নৌকাকে বিজয়ী করা ছাড়া আর কোন উপায় নেই। মাহবুবুর রহমান আজ ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, তারও যদি কাজ করতে হয় তাহলে শেখ হাসিনার সরকারকে প্রয়োজন। কারন অন্য কোন সরকার আসলে মাহবুব কোন কাজই করতে পারবে না। তাই উন্নয়নের স্বার্থে, নৌকার মাঝিকেই নির্বাচিত করতে হবে।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে মেম্বার ও চেয়ারম্যানের মিথ্যা আশ্বাসঃ স্বেচ্ছাশ্রমে এলাকাবাসীর রাস্তা সংস্কার

দোহারে আজ অনেক কাজের ক্ষেত্র তৈরি হয়ে আছে, পদ্মা বাঁধের কাজ চলছে। ঢাকা বাইপাসের কাজ চলছে। দোহার-নবাবগঞ্জ বাংলাদেশের মডেল উপজেলা হিসাবে তৈরি হবে। সে জন্য প্রয়োজন আওয়ামী লীগ সরকার ও আওয়ামী লীগের জন প্রতিনিধি। অনেকেই বলেন আমি মনোনয়ন পাব, আল্লাহ আমাকে যথেষ্ঠ সম্মান দিয়েছেন, আমি একজন পূর্ন মন্ত্রীর সুবিধা পাই। তাই আল্লাহ যদি চান, শেখ হাসিনা যদি চায় তাহলে আমি নির্বাচন করবো। নাহলে যেই আসুক, তাকে নৌকায় চড়িয়ে আমরাই সংসদে নিয়ে যাব।

দোহারে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে যে টানাপোড়ন তৈরি হয়েছে তা সাময়িক। এটাতে নেতৃত্বের কোন সংকট তৈরি হবে না। সংসদ নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগই একসাথে নির্বাচন করবে।

জয়পাড়া কলেজের সরকারী করনের প্রক্রিয়া নিয়ে সালমান এফ রহমান বলেন, মামলা-মোকাদ্দমা করে জয়পাড়া কলেজকে সরকারী করন করা যাবে না। আপনারা মামলা করেছেন কার বিরুদ্ধে। শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে। এটা আপনারা ভুল করেছেন। আমি মামলার ব্যাপারে কিছুই জানতাম না। তবে এখন আমি জেনেছি, আমি নেত্রীর সাথে কথা বলবো। তবে মামলা নিয়ে আমি কলেজ কতৃপক্ষের সাথে কথা বলবো। তারপর জয়পাড়া কলেজকে সরকারী করনের জন্য আমি নেত্রীর সাথে কথা বলবো। আমি কথা দিয়ে যাচ্ছি, জয়পাড়া কলেজও সরকারি হবে। শুধু কিছুদিন অপেক্ষা করুন। যতদিন জয়পাড়া কলেজ সরকারি না হচ্ছে, ততদিন আপনাদের যেকোন প্রয়োজনে আমার কাছে আসবেন। আমি জয়পাড়া কলেজের সব উন্নয়ন কর্মকান্ডে যা যা লাগবে আমি আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে দিব। আপনারা শুধু জানাবেন। আর মাহবুবুর রহমান তো বলেছেনই জয়পাড়া কলেজের একাডেমিক ভবন করে দিবে। আমরা সবাই মিলেই দোহার-নবাবগঞ্জকে এগিয়ে নিয়ে যাব।

অন্য খবর  যাদের নিয়ে মোশতাক সরকার গঠন করেছিলেন, তারা সবাই ছিলেন আওয়ামী লীগ বা বাকশালের নেতা

এই সময় জয়পাড়া কলেজের শিক্ষার্থীরা সালমান এফ রহমানকে করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানায়।

Comments

comments