জমে উঠেছে দোহার নবাবগঞ্জের ঈদ কেনাকাটা

603

ঈদের কেনাকাটায় মুখর হয়ে উঠছে দোহার নবাবগঞ্জের  শপিংমলগুলো। আর মাত্র কিছুদিন পরেই পবিত্র ঈদ উল ফিতর। সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ক্রেতাদের পদচারণায় ভারী হয়ে উঠেছে দোহার নবাবগঞ্জের  শপিংমলগুলো। পুরোদমে ঈদ উপলক্ষে  চলছে বাহারি পোশাকের বেচাকেনা। ক্রেতারা ঝুঁকছেন শাড়ি, লেহেঙ্গা, থ্রি-পিস, পাঞ্জাবি, জিন্স প্যান্ট, শার্টসহ বিভিন্ন জুতা-সেন্ডেল ও কসমেটিকস-এর দিকে। ফলে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দম ফেলার সময় পাচ্ছেন না বিক্রেতারা। পোশাকের পাশাপাশি জুতা-সেন্ডেল ও কসমেটিকস্-এর দোকানেও পছন্দের জিনিস কিনতে ভিড় জমাচ্ছে ক্রেতারা।

এবারের ঈদে দোহারের ছেলেদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে বাহারি পাঞ্জাবি। হাতের কারুকাজ, অ্যাম্ব্রয়ডায়েরিসহ বিভিন্ন নকশার পাঞ্জাবির দিকে তরুণদের ঝোঁক পূর্বের চেয়ে বেশি দেখা গেছে। এক বিক্রেতা জানালেন, সিল্ক, এন্ডি কটন (খদ্দর), ব্লক , সুতি ও তোষর কাপড়ের পাঞ্জাবির চাহিদা বেশি। ছোট-বড় ও বয়স্কদের পাঞ্জাবি বেশ ভালো বিক্রি হচ্ছে পাঞ্জাবির হাউজগুলোতে। ঈদে বাচ্চাদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে জনপ্রিয় কার্টুন টম এন্ড জেরি, ডোরেমন, মোটুপাতলু কালেকশন। এছাড়াও ছোটদের থ্রি কোয়ার্টার গ্যাবার্ডিন প্যান্ট ও চেক শার্টও বেশ বিক্রি হচ্ছে বলে জানা গেছে। এর পাশাপাশি প্যান্ট-গেঞ্জির সেটও বিক্রি হচ্ছে অনেক। নারী ক্রেতাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে হরেক রকমের শাড়ি, থ্রি-পিস ও লেহেঙ্গা।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে তাঁতী লীগের সভা অনুষ্ঠিত

দোহার নবাবগঞ্জে প্রবাসীদের সংখ্যা বেশী হওয়ায় ঈদের বাজার জুড়ে পুরুষ ক্রেতাদের চেয়ে নারীদের ভিড় বেশ লক্ষণীয়। জর্জেট, ধুপিয়ান সিল্কের শাড়ির পাশাপাশি রয়েছে নানা বাহারি নাম ও রঙের পোশাক। এক ব্যবসায়ী জানান ,”বিক্রি বেড়েছে ভালোই। মেয়েদের পোশাক বেশি বিক্রি হচ্ছে। আবহাওয়া ভালো থাকলে বিক্রি আরো বাড়বে আশা করা যায় ।

Comments

comments