চাদাঁবাজির মামলায় নাজমুল হুদা খালাস

321
ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা
ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা - ফাইল ফটো

নিজ দলের সাবেক সংসদ সদস্যের কাছ থেকে চাঁদা হিসেবে গাড়ি নেওয়ার মামলায় সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদাকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট। নাজমুল হুদার আপিলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. মিজানুর রহমান ভূঁঞার একক বেঞ্চ এ রায় দেন।

নাজমুল হুদার পক্ষে তিনি নিজে এবং রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল খন্দকার মোদাররেস  এলাহী তিরু শুনানিতে অংশ নেন।

এ মামলায় ২০০৮ সালের ১২ জুন ঢাকার পঞ্চম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো. আবু মোহসীনের আদালত নাজমুল হুদাকে ১২ বছর সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ  দেন। একই সঙ্গে তাঁকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তাঁকে আরো ছয় মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত।

তবে মামলার অপর আসামি ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার স্ত্রী অ্যাডভোকেট সিগমা হুদাকে বেকসুর খালাস দিয়েছিলেন আদালত।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০০৩ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি বগুড়ার সাবেক সংসদ সদস্য জি এম সিরাজ ঢাকায় নাজমুল হুদার ধানমণ্ডির বাসায় গেলে হুদা তাঁর পত্রিকা ‘খবরের অন্তরালের’ জন্য সিরাজের কাছে দুটি গাড়ি চাঁদা হিসেবে দেওয়ার দাবি জানান। সিরাজ প্রথমে চাঁদা হিসেবে গাড়ি দিতে অস্বীকৃতি জানান। কিন্তু পরে তাঁকে বাধ্য করা হলে তিনি ওই বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি উত্তরা মোটরস থেকে একটি ৮০০ সিসি মারুতি গাড়ি কিনে হুদাকে দেন।

অন্য খবর  আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি: মওদুদ আহমদ

পরে ২০০৭ সালের ২৯ জুলাই ধানমণ্ডি থানায় নাজমুল হুদা ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করেন জি এম সিরাজ।

Comments

comments