ঢাকার দোহার উপজেলার চর কুশাই গ্রামে নদীর পানিতে ডুবে নিখোঁজ দুই ভাইয়ের মধ্যে একজনের লাশ একদিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ।

দোহার থানার চর মোহাম্মদপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. আরব আলী জানান, বুধবার দুপুরে উপজেলার চর লটাখোলা এলাকার একটি খাল থেকে শিশুটির লাশ তারা উদ্ধার করেন। মৃত মাইদুল ইসলাম (৮) ওই এলাকার পলাশ বেপারীর ছেলে।

পলাশের বোনের ছেলে মো. জিহাদ (৭) এখনও নিখোঁজ রয়েছে। তার বাড়ি মানিকগঞ্জে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পরিবারের বরাত দিয়ে এসআই আরব বলেন, ঈদের ছুটিতে জিহাদ তার মায়ের সঙ্গে দোহারে মামার বাড়ি বেড়াতে আসে। মঙ্গলবার দুপুরে পলাশ তার ছেলে মাইদুল ও ভাগ্নে জিহাদকে নিয়ে বাড়ির পাশে পদ্মার শাখা নদীতে গোসল করতে যান।

“নদীর পাড়ে তাদের দাঁড় করিয়ে গোসলে নামেন তিনি। এক পর্যায়ে মাইদুল ও জিহাদ নদীতে নামলে পানিতে তলিয়ে যায়।”

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস,পুলিশ ও স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করলেও তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। বুধবার ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে মাইদুলের লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা থানায় খবর দেয়।

অন্য খবর  প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে দোহারে তৈরি হবে অর্থনৈতিক অঞ্চল

কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে বুধবার রাত পর্যন্ত জিহাদের সন্ধান মেলেনি বলে জানান এসআই।

Comments

comments