কেরানীগঞ্জে দফতরির হাত ভেঙে দিলেন স্কুলের সভাপতি

86

কেরানীগঞ্জে শাক্তা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দফতরি কাম নৈশপ্রহরী হারুনুর রশিদের পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে একই স্কুলের সভাপতি জমির হোসেন। সভাপতির বাড়ির কাজ করতে রাজি না হওয়ায় জমির হোসেন ও তার ছেলে পল্লব মিলে জমির হোসেনকে মারধর করে হাত ভেঙে দেয়। এ ঘটনায় সোমবার কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন জমির হোসেন। এদিকে দফতরিকে মারধরের ঘটনায় সোমবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ঢাকা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা।

দফতরি হারুনুর রশিদ জানান, বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উপলক্ষে শুক্রবার সকালে তিনি স্কুল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কাজে ব্যস্ত ছিলেন। ওই সময় স্কুলের সভাপতি জমির হোসেন তাকে ফোন করে বাজার থেকে একটি মুরগি কিনে আনতে বলেন। মুরগি কিনে সভাপতির বাসায় ফিরতে দেরি হওয়ায় সভাপতি তাকে গালমন্দ করেন। হারুনুর রশিদ এর প্রতিবাদ করেন এবং কারও বাড়ির ব্যক্তিগত কাজ তিনি করবেন না বলে জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সভাপতি জমির হোসেন ও তার ছেলে পল্লব মারধর করে হারুনুর রশিদের হাত ভেঙে দেয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাজেদা সুলতানা বলেন, দফতরি সরকারের চাকরি করেন। কারও বাসায় ব্যক্তিগত কাজের জন্য তাকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। এ ঘটনায় ওই সভাপতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অন্য খবর  দোহারে ৯ মাদক ব্যবসায়ী আটক

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, দফতরি হারুনুর রশিদ লিখিত একটি অভিযোগ দিয়েছেন। তবে সেটি তদন্ত করার আগেই অভিযোগকারী জানিয়েছেন, এ বিষয়ে তার কোনো অভিযোগ নেই। তারা দুই পক্ষ বিষয়টি মীমাংসা করে নিয়েছে।

Comments

comments