করোনার টাইমলাইন

331

২০১৯

ডিসেম্বর ৩১: চীনে নতুন অজানা নিউমোনিয়া রোগী শনাক্ত।

২০২০

জানুয়ারি ১১: চীনে প্রথম মৃত্যু।

ফেব্রুয়ারি ২: চীনের বাইরে প্রথম ফিলিপাইনে একজনো করোনা আক্রান্ত রোগী মারা যান।

ফেব্রুয়ারি ১১: করোনাসৃষ্ট রোগের নামকরণ করা হয় “কোভিড-১৯”।

ফেব্রুয়ারি ২৯: যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম মৃত্যু।

মার্চ ৮: বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত। রোগীদের মধ্যে দুজন পুরুষ প্রবাসী বাংলাদেশী ছিলেন যারা সবে ইতালি থেকে ফিরে এসেছিলেন এবং একজন মহিলা আত্মীয় ছিলেন, যিনি তাদের একজনের সংস্পর্শে এসে সংক্রামিত হন।

মার্চ ৩১: নবাবগঞ্জে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত।

এপ্রিল ১০: নবাবগঞ্জে ২য় করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত। আক্রান্ত ব্যক্তি নয়নশ্রী ইউনিয়নের ছোট তাশুল্লা গ্রামের বাসিন্দা।

মার্চ ১৮: বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর প্রথম মৃত্যু। মৃত ব্যক্তির বয়স ছিল ৭০ বছর।

মার্চ ২০: দোহারের জয়পাড়া বাজার সহ বড় বাজারগুলো বন্ধ ঘোষণা।

এপ্রিল ১২: নবাবগঞ্জের প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেন।

এপ্রিল ১৩: নবাবগঞ্জের বক্সনগরে একজন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি সনাক্ত। মোট শনাক্ত ৩ জন।

এপ্রিল ১৪: দেশে আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়ায়।

এপ্রিল ১৬: নবাবগঞ্জে ২ জন করোনা রোগী সনাক্ত, আক্রান্তরা চুড়াইন ইউনিয়নের বাসিন্দা। মোট আক্রান্ত ৫ জন।

এপ্রিল ২০: দেশে মৃতের সংখ্যা একশ ছাড়ায়।

এপ্রিল ২০: নবাবগঞ্জের চূড়াইন ইউনিয়নে এক জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। মোট আক্রান্ত ৬।

এপ্রিল ২১: দোহারে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত তিনি দক্ষিণ জয়পাড়ার বাসিন্দা ও সমাধান ক্লিনিকের একজন চিকিৎসকের সহকারী।

এপ্রিল ২১: নবাবগঞ্জের চূড়াইন ইউনিয়নে ২ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। নবাবগঞ্জে মোট আক্রান্ত ৮।

এপ্রিল ২২: দোহারে ২য় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত। রোগী রংপুর নিবাসী, লটাখোলায় স্ত্রীর কর্মস্থলে আসে।

এপ্রিল ২৫: নবাবগঞ্জে ২ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তরা যন্ত্রাইল ও শোল্লা ইউনিয়নের বাসিন্দা। নবাবগঞ্জে মোট আক্রান্ত ১০ জন।

এপ্রিল ২৪: দোহারে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু,  তিনি ঢাকার রিজেন্ট হসপিটালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। রোগী রংপুরের স্থায়ী নিবাসী।

এপ্রিল ২৬: দোহারে ২ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত, মোট শনাক্ত ৪।

মে ৩: নবাবগঞ্জের করোনা আক্রান্ত ৩য় ব্যক্তি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেন।

মে ৪: দেশে আক্রান্তের সংখ্যা দশ হাজার ছাড়ায়।

মে ৪: দোহারে দুইজন আক্রান্ত শনাক্ত। একজন জয়পাড়া বাজারের একটি চাল-ডালের দোকানের ২৯ বছর বয়সী কর্মচারী, অপরজন সোহরাওয়ার্দি হসপিটালের ৫০ বছর বয়সী একজন নারী চিকিৎসক, তার বাড়ী নারিশা।

মে ১০:  দোহারের নয়াবাড়ী ইউনিয়নের ধোয়াইর গ্রামে এক জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। দোহারে মোট আক্রান্ত ৭।

মে ১০: দোহারে প্রথম রোগী সুস্থ্য। তিনি রিজেন্ট হসপিটাল থেকে রাতে বাড়ী ফেরেন।

মে ১০: নবাবগঞ্জে ৩ জন আক্রান্ত শনাক্ত, রোগীদের এক জন কৈলাইল ও বক্সনগরের ২ জন। এদের মধ্যে দুই জন শিশু। মোট আক্রান্ত ১৩ জন।

মে ১১: নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউনিয়নে ৩ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্ত ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানী ঢাকায় বসবাস করতেন। এক সপ্তাহ আগে তাঁরা গ্রামের বাড়িতে আসেন। নবাবগঞ্জে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ১৮।

মে ১২: জয়পাড়ায় একজন ২৯ বছর বয়সী নারী আক্রান্ত শনাক্ত। দোহারে আক্রান্তের সংখ্যা আট।

মে ১২: নবাবগঞ্জে ২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত। নবাবগঞ্জে মোট আক্রান্ত দাড়াল ২০ এ। এ পর্যন্ত সুস্থ্য ৭ জন।

মে ১৩: দোহারে এক দিনে ৫ জন নতুন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তদের একজন দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত ১৩।

মে ১৩: নবাবগঞ্জের বান্দুরা ইউনিয়নে ১ জন করোনা আক্রান্ত। নবাবগঞ্জে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ২১।

মে ১৪: দোহারের ১২ মে তারিখে আক্রান্ত নারীর মৃত্যু দোহারে ২য় মৃত্যু। রোগীর নাম সোমা পাল, জয়পাড়া পাল বাড়ির মদন পালের মেয়ে।

মে ১৪: দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগ লকডাউন। জরুরী বিভাগের অস্থায়ী কার্যক্রম জয়পাড়া পোস্ট অফিস গেটের বিপরীতে নতুন ভবনে স্থানান্তর।

মে ১৭: দোহারে একদিনে রেকর্ড ১৭ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তদের মধ্যে ১৬ জন পুলিশ সদস্য, এক জন চিকিৎসক। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত ৩০।

মে ১৮: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তরা নয়নশ্রী ইউনিয়নের বাসিন্দা। এ পর্যন্ত নবাবগঞ্জ উপজেলায় মোট আক্রান্ত ২৪।

মে ২১: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ২১ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তদের দুই জন নয়নশ্রী, এক জন বান্দুরা বাজার ও আঠারো জন নতুন বান্দুরার অধিবাসী। এদের মধ্যে একজন শিশু ও দশ জন নারী।

মে ২১: দোহার উপজেলায় ৫ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত। ৪ জন জয়পাড়া বাজার সংলগ্ন (পূর্বে করোনায় মৃত সোমা পালের পরিবারের সদস্য) ও এক জন রাইপাড়ার বাসিন্দা।

মে ২২: নবাবগঞ্জে ২ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তরা বাগমারা ও দাউদপুরের বাসিন্দা। দাউদপুরের ব্যক্তি একজন মাছ বিক্রেতা। নবাবগঞ্জে মোট আক্রান্ত দাঁড়াল ৪৭ জন!

মে ২৪: দোহারে ৩ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তদের বাড়ি উপজেলার বিলাসপুর, কুসুমহাটি ও মাহমুদপুর ইউনিয়নে। আক্রান্ত ৩ জনের মধ্যে ২ জন নারী ও এক জন পুরুষ। মোট আক্রান্ত ৩৮ জন।

মে ২৪: নবাবগঞ্জে ৬ জন নতুন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। কলাকোপা ইউনিয়নে ৩ জন, বান্দুরা ইউনিয়নে ২ ও নয়নশ্রী ইউনিয়নে এক জন। নবাবগঞ্জে মোট আক্রান্ত দাড়াল ৫৩ জন। নবাবগঞ্জে আক্রান্তদের মধ্যে একজন সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব তৈয়ব।

মে ২৪: দোহারের প্রথম সুস্থ হওয়া কোভিড-১৯ রোগীকে উপজেলা প্রশাসন শুভেচ্ছা জানান

মে ২৬: নবাবগঞ্জের কৈলাইল ইউনিয়নে কিশোর বয়সী আপন দুই ভাই করোনাভাইরাস আক্রান্ত। উপজেলায় মোট আক্রান্ত ৫৫ জন।

মে ২৭: দোহারে ৯ জনের করোনা সনাক্ত। নতুন সনাক্ত হওয়া একজন হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মী, আরেকজনের বাড়ি লটাখোলা, উত্তর জয়পাড়া ২, কাটাখালী ২, মেঘুলা এক, শিলাকোঠা এক, শাইনপুকুরের এক জন।। উপজেলায় মোট আক্রান্ত ৪৭ জন।

মে ২৮: নবাবগঞ্জ উপজেলায় প্রথম মৃত্যু! নতুন বান্দুরার গৌরাঙ্গ বণিক নামে এক ব্যক্তি ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

মে ২৮: নবাবগঞ্জ উপজেলায় আরও ৮ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত। এ পর্যন্ত মোট ৬৩ জন।

মে ২৮: দোহারে ৭ করোনাভাইরাস আক্রান্ত, মোট আক্রান্ত ৫৪। আক্রান্তদের মধ্যে দুইজন দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্যকর্মী ও একজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মসজিদের মুয়াজ্জিন, বাকি চার আক্রান্তের মধ্যে একজনের বাড়ি মালিকান্দা গ্রামে, একজনের বাড়ি বিলাসপুরের রাধানগর, একজনের বাড়ি রাইপাড়া এবং একজনের বাড়ি ঢাকা।

মে ৩০: নবাবগঞ্জে একসাথে ৮৯ জন করোনাভাইরাস আক্রান্তের রিপোর্ট আসে। বিগত মঙ্গল, বুধ ও বৃস্পতিবার এই তিন দিনের সংগৃহীত নমুনার ফল।

জুন ০১ : নবাবগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়নভিত্তিক করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর তালিকা:

১) বাহ্রা -৮
২) নয়নশ্রী -১১
৩) বক্সনগর -৪
৪) চূড়াইন -৬
৫) শোল্লা -১
৬) যন্ত্রাইল-৭
৭) কলাকোপা-৪১
৮) কৈলাইল -৪
৯) বান্দুরা -৫২
১০) শিকারী পাড়া-১
১১) জয়কৃষ্ঞপুর-১
১২) বারুয়াখালী -২
১৩) আগলা-১০
১৪) গালিমপুর -৩

★সিরাজদিখান(খারশুর)-১

মোট: ১৫২ জন

জুন ০১: দোহারে ৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বের আক্রান্ত একজন ব্যক্তিকে পুনরায় পরীক্ষা করা হলে আবারো তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ নিয়ে দোহারে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ৬৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩২ জন।

জুন ০২: দোহারে ২৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৯১ জন। এএই ২৮ জনের মধ্যে দোহার পৌর এলাকার ১২ জন, রাইপাড়া ইউনিয়নে ৭ জন, মুকসুদপুর ইউনিয়নে ৬ জন, নারিশা ইউনিয়নে ২ জন ও বিলাসপুরে ১ জন।

জুন ০২ পর্যন্ত দোহার উপজেলায় গ্রামভিত্তিক করোনা রোগীর পরিসংখ্যান:
জয়পাড়া: ৪১ জন
ফুলতলা: ০৬
লটাখোলা: ০৫
ইকরাশি: ০৫
রাইপাড়া: ০৫
নারিশা: ০৪
মালিকান্দা: ০৩
শিলাকোঠা: ০৩
রাধানগর: ০৩
কাটাখালি: ০২
দক্ষিণ শিমুলিয়া: ০২
ধোয়াইর: ০২
নারিশা পশ্চিম চর: ০২
কার্তিকপুর: ০১
মাহমুদপুর: ০১
ডায়ারকুম: ০১
দুবলি: ০১
মেঘুলা: ০১
কাজীরচর: ০১
শাইনপুকুর: ০১
বাইরের: ০২
সর্বমোট =৯১ জন

জুন ০৩: দোহার উপজেলায় ১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০৪ জন। আক্রান্তরা জয়পাড়া, ঝনকি, দক্ষিণ শিমুলিয়া ও মুকসুদপুরের অধিবাসী।

জুন ০৩: নবাবগঞ্জে ৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত ১৫৮ জন। ৩০.০৫.২০ শনিবার পাঠানো ৬১ জনের নমুনা হতে নতুন ৬ জন শনাক্ত করা হয়। আক্রান্ত ৬ জন নবাবগঞ্জ উপজেলার নয়নশ্রী, বান্দুরা, কলাকোপা, কৈলাইল ও চুরাইন ইউনিয়নের বাসিন্দা।

জুন ০৫: দোহার উপজেলায় ১১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত দাঁড়াল ১১৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে ৫ জন জয়পাড়া, ৫ জন ফুলতলা ও ১ জন শ্রীকৃষ্ণপুরের বাসিন্দা।

জুন ০৭: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ১৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত সংখ্যা ১৭৩ জন। ০২.০৬.২০ তারিখ পাঠানো ৮৭ জনের নমুনা হতে ১৫ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়। আক্রান্তরা জয়কৃষ্ণপুর, বান্দুরা, কলাকোপা, আগলা, যন্ত্রাইল ও চুড়াইন ইউনিয়নের বাসিন্দা। আক্রান্তদের একজন ব্যাংক কর্মকর্তা।

জুন ০৮: দোহার উপজেলায় ১৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত ১২৯ জন। নতুন আক্রান্ত ১৪ জনের মধ্যে ৩ জন ফুলতলা, ৩ জন নারিশা, ৩ জন দোহার, অন্যরা জয়পাড়া ও ঘোনা এলাকার বাসিন্দা। গত ৩ জুন পাঠানো ৩৮ জনের নমুনা থেকে ১৪ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪০ জন।

জুন ৮: নবাবগঞ্জে নতুন শনাক্ত ৯ জন। মোট আক্রান্ত ১৮২ জন

জুন ০৮: করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার কলাকোপা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তৈয়ব আহমেদ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন

জুন ৯: নবাবগঞ্জে ১২ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত। উপজেলায় মোট আক্রান্ত দাঁড়াল ১৯৪ জন।

জুন ১০: দোহারে ২৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত, এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত ১৫২ জন।

জুন ১১: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মারা যান দোহারের কৃতি সন্তান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এর শিশু সার্জন অধ্যাপক ড. জহিরুল হাসান গাজী রকেট।

জুন ১২: দোহারে ৬ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১৫৭ জন। ৭ জুন পাঠানো ২৬ জনের নমুনা থেকে ৬ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। নারিশা ১, মইতপাড়া ১, রাইপাড়া ২, সুতারপাড়া ১, দোহার বাজার ১ জন। আগের আক্রান্ত একজনকে টেষ্ট করানো হলে পুনরায় তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে তাই মোট আক্রান্ত সংখ্যা ১৫+৬-১= ১৫৭ জন।

জুন ১৩: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৯ জনের করোনাভাইরাস পজেটিভ। এ নিয়ে নবাবগঞ্জে মোট আক্রান্ত ২০৩ জন।

জুন ১৪: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ১৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত। মোট আক্রান্ত ২১৬ জন।

জুন ১৫: দোহার উপজেলায় ১৩ জনের করোনা শনাক্ত। এ নিয়ে দোহারে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৭৬ জন।
আক্রান্তদের মধ্যে উপজেলার সুতারপাড়ায় মারা যাওয়া তরিকুল ইসলামের করোনা পজিটিভ এসেছে। আক্রান্তদের মধ্যে জয়পাড়া-৭ জন, চরকুশাই-৫ জন ও সুতারপাড়ার-১ জন।

জুন ১৭: নবাবগঞ্জে ২০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৩৩ জন। বুধবারে(১০/০৬/২০) পাঠানো ৩৭ টি নমুনা থেকে ২০ টি পজিটিভ আসে। এরমধ্যে নতুন ১৮ জন ও পুরাতন ২জন।

জুন ১৭: দোহারে ১০ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত। আক্রান্তরা হচ্ছেন উপজেলার রাইপাড়া-৩, জয়পাড়া-২, সুতারপাড়া-১, মুকসুদপুর-২ নারিশা-২ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৮৯জন।

জুন ১৮: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৫ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্তদের ১ জন নয়নশ্রী, ৩ জন কলাকোপা  ও ১ জন গালিমপুরের বাসিন্দা। মোট আক্রান্ত ২৩৮ জন।

জুন ১৮: দোহারে ১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৯৯ জন। গত ১৩ জুন পাঠানো নমুনা থেকে ১০ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৮৭ জন।

জুন ১৯: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত ২৪৭ জন।

জুন ২০: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৭ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত। ১৪/০৬/২০ তারিখে পাঠানো ৩৩ টি নমুনা হতে কলাকোপার ২ জন, বান্দুরার ১ জন, বক্সনগরের ১ জন, আগলার ১ জন ও ২ জন ব্যাংক কর্মকর্তা শনাক্ত হন। উপজেলায় মোট শনাক্ত ২৫৪ জন।

জুন ২০: দোহার উপজেলায় নতুন ১২ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত। ১৪ ও ১৫ জুনের ৪২ জনের নমুনা হতে ১২ জনের রিপোর্ট পজেটিভ পাওয়া যায়। এ নিয়ে দোহারে মোট আক্রান্ত ২১১ জন।

জুন ২৪: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত।  ১৫ জুন পাঠানো ৪৩ নমুনা হতে কলাকোপা ১, আগলা ১ ও মরিচার ১জন শনাক্ত। মোট আক্রান্ত ২৫৭ জন।

জুন ২৪: দোহার উপজেলায় ৭ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২২০ জন (!)। সুস্থ হয়েছে ১৩৫ জন। নতুন আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে উপজেলার জয়পাড়ায়- ২, মুকসুদপুর- ২, রাইপাড়া-১, সুতারপাড়ায় -১ ও নয়াবাড়ির ১ জন। ১৬ জুন ২৮ জনের নমুনা থেকে ৭ জনের করোনা পজিটিভ আসে।

জুন ২৪: নবাবগঞ্জ উপজেলায় ১ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত। আক্রান্ত ব্যক্তি গালিমপুরের বাসিন্দা।  মোট শনাক্ত ২৫৮ জন, এ পর্যন্ত মোট সুস্থ ১২৭ জন।

দোহারে করোনাভাইরাস

মোট শনাক্ত: ২২০
মৃত্যু:
সুস্থ্য: ১৩৫
চিকিৎসাধীন: ৮২

নবাবগঞ্জে করোনাভাইরাস

মোট শনাক্ত: ২৫৮
মৃত্যু:
সুস্থ্য: ১২৭
চিকিৎসাধীন: ১২৭

করোনার টাইমলাইন, নিউজ৩৯.নেট

Comments

comments