ঢাকার গুলিস্তানে দোহারের আরাম পরিবহন ও নবাবগঞ্জের এন মল্লিক পরিবহনের দুই বাসের চাপায় পারভীন বেগম নামের এক নারী নিহত হয়েছেন। রবিবার দুপুর ১টার দিকে গুলিস্তানে মাজারের সামনে ঘটনাটি ঘটে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর পৌনে ২টার দিকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী রেডক্রিসেন্টের কর্মী জান-ই আলম জাহিদ জানান, তারা কয়েকজন গুলিস্তানে স্বেচ্ছাসেবীর কাজ করছিলেন। দুপুর ১টার দিকে মাজারের সামনে এন মল্লিক ও আরাম পরিবহনের দুটি বাস চাপায় এক নারী আহত হয়। পরে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হলে মারা যান।

নিহতের মেয়ে সুরাইয়া আক্তার জানান, তাদের বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার রাজদিয়া গ্রামে। নিজে বাতজ্বরে ভুগছেন। চিকিৎসার জন্য মাকে নিয়ে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে গিয়েছিলেন। হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরবার পথে চোখের সামনে মাকে দুই বাসের মাঝে পিষ্ট হতে দেখলেন।

সুরাইয়া আরও জানায়, হাসপাতালের সামনে থেকে বাসে উঠে তারা গুলিস্তান নেমেছিলেন। মাজারের সামনে রাস্তা পার হচ্ছিল তারা। মা সামনে ছিলেন। এ সময় দুইটি বাসের মাঝে চাপা পড়েন। সেখানে থাকা কয়েকজন পারভীনকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

অন্য খবর  দোহারে 'মানবতার জন্য আমরা' সংগঠনের শীতবস্ত্র বিতরণ সম্পন্ন

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

Comments

comments