গত কয়েক বছরে এতো বেশি ই-কমার্স ওয়েব সাইট চালু হয়েছে যে বাংলাদেশের ই-কমার্স খাত ইতোমধ্যে নাম সংকটে পড়ে গেছে। এর প্রামণ পাওয়া যায় নতুন চালু হওয়া অনলাইন শপগুলির নামে। বেশিরভাগ ই-কমার্স চালু হয় ব্যক্তিউদ্যোগে, যাদের নামকরণের বিষয়ে যথাযথ ধারণা না থাকাই স্বাভাবিক। এইসব বিষয় বিবেচনা করে ডোমেইন নির্ধারণ করলে অদ্ভুত সব নামের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে:

১. .কমের আগে বিডি নয়

ইংরেজি ভাষার সমস্ত জেনেরিক শব্দের ডোমেইন নাম শেষ হয়ে গেছে। তাই এখন কোনো জেনেরিক শব্দ বা শব্দগুচ্ছে ডোমেইন নিতে অনেকেই .কম এর আগে বিডি বসিয়ে নেন। বিষয়টা খুব সাধারণ হয়ে গেছে, যার ফলে এখন আর বিডি দিয়ে নাম অনন্য (ইউনিক) হচ্ছে না, ব্র্যান্ডিঙের জন্যেও আর উপযুক্ত না। তার চে “.কম.বিডি” কেনা ভাল অথবা সম্পর্কযুক্ত কোনো শব্দ জুড়ে দিয়ে, যেমন ntvbd.com না হয়ে  ntvonline.com

আবার অনেক সময় .com এর আগের bd চোখে পড়ে না।

২. দুই শব্দযুক্ত ডোমেইনের মাঝে একই বর্ণ নয়

দুইটি শব্দ দিয়ে বানানো ডোমেইনে প্রথম শব্দের শেষে ও দ্বিতীয় শব্দের শুরুতে একই বর্ণ না দেয়া ভাল, যেমন nrbbazar.com । এখনে মাঝে দুইটি b এর একটা b টাইপ করতে গিয়ে প্রায়ই হারিয়ে যেতে পারে, অনেক সময় দুইটি সমবর্ণ চোখে নাও পড়তে পরে।

৩. কনফিউজিং বানানের শব্দ এড়িয়ে চলা

সহজ ও সোজা শব্দের বানানে নাম নিতে হবে, একাধিক ভাবে বানান করা যায় এমন শব্দে নাম ঠিক না করা উচিৎ। এতে নাম মনে রাখার মত হলেও বানান মনে রাখা যায় না।

৪. আশেপাশের ডোমেইন কিনে রাখা

যদি এমন কোনো নামে ডোমেইন নেয়া হয় যার উচ্চারণ বা বানান সুনির্দিষ্ট না বা এমন বানান যা মানুষ অচেতনভাবেই টাইপ করতে ভুল করবে এমন হলে সম্ভাব্য সব বানানে ডোমেইন নিয়ে রাখা। যদিও নতুন বা ছোট উদ্যোক্তারা প্রথমেই একাধিক ডোমেইন কিনতে পারেন না, তার জন্য পরে খেসারত দিতে হয়। যেমন বাংলাদেশের শীর্ষ চাকরির সাইট bdjobs.com, বেশ কিছু নতুন সাইট কাছাকাছি ডোমেইন নাম নিয়ে চাকরির সাইট খুলেছে। এর ফলে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হতে পারে, যেমন, bdjobs.com.bd, bdjobz.com, jobsbd.com ইত্যাদি। বাগডুম ইংরেজিতে দুইভাবে বানান করা যায়, বাগডুম.কম bagdoom.com ও bagdum.com দুটোই কিনে রেখেছে। বিশেষভাবে বাংলা নামে ডোমেইন নিতে গেলে এই বিষয়টা খেয়াল রাখতে হবে যে ইংরেজিতে বাংলা বানানের সুনির্দিষ্টি নিয়ম নেই, একই শব্দ একাধিক ভাবে বানান করা হয়। যার কারণে বিভ্রান্তিকর বাংলা বানানে ব্র্যান্ডিং করাও কঠিন।

মাঝে মধ্যে উল্টো ডোমেইনও কিনতে হতে পারে। amazoff.com amazon.com কে বহু ভুগিয়েছে। শেষে চড়া দামে amazoff.com কিনে উদ্ধার পেতে হয়েছে এমাজনকে।

৫. পাশাপাশি .কম.বিডি ডোমেইন কিনে রাখা

আর্থিক সঙ্গতি থাকলে মূল .com ডোমেইনের পাশাপাশি .com.bd ডোমেইনও কিনে রাখা উচিৎ। আপনি খেটেখুটে একটা .com সাইটের ব্যবসা দাঁড় করালেন, কেউ একজন একই নামে .com.bd চালু করে ক্রেতাদের বিভ্রান্ত করে ব্যবসার বারোটা বাজাল।

৬. .website, .store, .live, .xyz জাতীয় ডোমেইন না কেনা

সারা পৃথিবীতেই মানুষ এখনো ডোমেইন বলতে .কম বুঝে। .website, .store, .live, .xyz জাতীয় শত শত ডোমেইন বের হয়েছে এখন। ধরা যাক আপনার সাইটের ঠিকানা daraz.store, ক্রেতা daraz.store.com এ যাবার চেষ্টা করবে, তার মাথায় আসবে না .store একটা ডোমেইন। অনেক মোবাইলের কিপ্যাডে সরাসরি .com বাটন থাকে।

৭. শব্দ সংক্ষেপ দিয়ে ডোমেইন না নেয়া

শব্দগুচ্ছের অদ্যাক্ষর দিয়ে ডোমেইন নাম নিলে ডোমেইন ছোট হলে উচ্চারণে বড় হয়ে যায়, এসইও ফ্রেন্ডলি হয় না অনেক সময়। যদি শব্দসংক্ষেপ নতুন কোনো আকর্ষনীয় শব্দ সৃষ্টি করে তবে নেয়া যেতে পারে, যেমন, yahoo.com, নয়তো ডোমেইন নেম ছোট হলেও উচ্চারণে বড় হয়ে যায়, যা ব্র্যান্ডিঙের জন্য উপযুক্ত নয়, যেমন, nrbbazaar.com

৭. মোমোরেবল

সবসময় একই তত্ব মেনে ডোমেইন নাম নিতে হবে এমন নয়। কখনো নাম অর্থবোধক হতে হয়, একাই সাথে মেমোরেবল হতে হয়, আবার কখনো শুধু মেমোরেবল হলেই হয়।

৮. নামের মধ্যে ইকমার্স নির্দেশক শব্দ থাকতেই হবে এমন নয়

অনেকে নামের মধ্যে দোকান বা কেনাকাটা নির্দেশক শব্দ রেখে ডোমেইন নাম নিতে গিয়ে হিলারিয়াস সব নাম নেয়, যেমন: আমিকিনি.কম, কিদরকার.কম, নানাবাজার.কম ইত্যাদি, ইত্যাদি। ইকমার্স নির্দেশক ভাল নাম পাওয়া গেলে ভাল, না পাওয়া গেলে শ্রুতিমধুর কোনো নাম রাখা যেতে পারে। বিশ্বের সবচে বড় ইকমার্স সাইটের নামে ইকমার্স নির্দেশক কিছু নেই, একটা অরণ্যের নামে নাম রাখা।

৯. বাংলা নামের ডোমেইনের সতর্কতা

যেসব বাংলা নাম ইংরেজিতে শুধু একভাবেই বানান করা যায় এমন নামে ডোমেইন নেয়া ভাল। যেমন: দোকান, ইংরেজিতে Dokan (ডোমেইন পাওয়া যাবে না, উদাহরণ দেবার জন্য বললাম)। অনেক শব্দ আছে একেকজন একেকভাবে বানান করে, যেমন: মঙ্গল, এটি ইংরেজিতে বিভিন্নভাবে বানান করা যায়; বাংলা ‘ভ’ ইংরেজিতে একাধিক বানান প্রচলিত আছে। একসময় দেখা যাবে একই নামের ভিন্ন ভিন্ন বানানে একাধিক ওয়েবসাইট হয়ে গেছে।

১০. বহুল প্রচলিত শব্দ এড়িয়ে চলা

বহুল প্রচলিত শব্দ এড়িয়ে চলাই ভাল, এমন নাম মেমোরেবল হয় না। একই রকম নামের সাইটগুলোকে ক্রেতারা গুলিয়ে ফেলতে পারে। যথাসম্ভব অনন্য নাম হতে হবে।

১১. ডোমেইনের বর্ণসংখ্যা

নাম ছোট হওয়া ভাল। ইংরেজি চার বর্ণ দিয়ে বানানো সম্ভব এমন যাবতীয় ডোমেইন বিক্রি হয়ে গেছে। পাঁচ ও ছয় বর্ণেও ভাল ডোমেইন নাম পাওয়া যায় না। তাই ডোমেইন বারো বর্ণের বেশি না হওয়া উচিৎ, সাত থেকে নয়-এ রাখাতে পারলে ভাল। এসইওর জন্য কিওয়র্ড গুরুত্বপূর্ণ, তাই ভাল কিওয়ার্ড পাওয়া গেলে নাম একটু বড় হলে সমস্যা নেই।

১২. ডেমেইনে হাইফেন বা সংখ্যা নয়

ডোমেইনে হাইফেন ও সংখ্যা এড়াতে হবে। হাইফেন অনেকেই খেয়াল করে না। হাইফেন ও সংখ্যা এসইওর’র জন্যেও ভাল না বলেই এসইও এক্সপার্টরা বলেন।

১৩. ক্যাজুয়াল শব্দ এড়ানো

নাম শুনেই বা দেখেই ক্রেতার মধ্যে প্রাথমিক ইমপ্রেশন আসে। নামের মধ্যে সিরিয়াসনেস থাকতে হবে, অতিরিক্ত ক্যাজুয়াল শব্দ এড়াতে হবে, যেমন: কীদরকার.কম, যেমনখুশি.কম সবকিছু.কম, বাজার-সদাই ইত্যাদি।

লেখক: পারভেজ রবিন

Comments

comments