ইতালির নাগরিক হত্যা মামলায় আরও ২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ

172

ইতালির নাগরিক তাবেলা সিজার হত্যা মামলায় আরও দুইজনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে। সাক্ষীরা আদালতে জবানবন্দি দেওয়ার পর আসামিদের পক্ষে তাদের জেরা শেষে পরবর্তী সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২০ জুন দিন ধার্য করা হয়েছে।

ফলে মামলার চার্জশিটভুক্ত মোট ১৭ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে।

গতকাল সোমবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ মো. কামরুল হোসেন মোল্লা সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে পরবর্তী সাক্ষীর দিন ধার্য করেন। এদিন মামলার চার্জশিটভুক্ত সাক্ষি সিসি টিভির সিস্টেম অপারেটর ফয়সাল ও জনৈক তৌফিকুর রহমান সাক্ষ্য দেন।

এ মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য থাকায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে থাকা পাঁচ আসামিকে আদালতে আনা হয়। সাক্ষ্য গ্রহণ শুরুর আগে তাদের এজলাসে নিয়ে আসা হয়। গ্রেপ্তার আসামিদের মধ্যে আবদুল মতিন ছাড়া অন্যরা স্বীকারোক্তিসূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গত বছরের ২৫ অক্টোবর এ মামলার আসামি বিএনপি নেতা এম এ কাইয়ুমসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।

এর আগে একই বছরের ২৮ জুন ডিবি পুলিশের পরিদর্শক গোলাম রাব্বানী মামলাটিতে ৭ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

অন্য খবর  বাংলাদেশের নাগরিকত্ব প্রত্যাহারকারী আবার নাগরিকত্ব ফিরে পাবেন

বলা হয়, হামলাকারীদের লক্ষ্য ছিল একজন শ্বেতাঙ্গকে হত্যা করে দেশ-বিদেশে আতঙ্ক ছড়িয়ে দেওয়া। দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে এই পরিকল্পনা করা হয়। পরিকল্পনামতে ভাঙ্গাড়ি সোহেলের কাছ থেকে পিস্তল ভাড়া নিয়ে খুনিরা তাভেলাকে হত্যা করে। কমিশনার কাইয়ুমের ভাই আবদুল মতিনের নির্দেশে গত বছেরের ২৮ সেপ্টেম্বর শাখাওয়াতের মোটরসাইকেল নিয়ে মিনহাজুল, তামজিদ ও রাসেল চৌধুরী গুলশান-২-এর ৯০ নম্বর সড়কে যান। ওই সড়কের গভর্নর হাউসের সীমানা প্রাচীরের বাইরে ফুটপাতে নিরিবিলি ও অন্ধকার স্থানে তামজিদ গুলি করে তাভেলা সিজারকে (৫১) হত্যা করে। এতে তাঁকে সহায়তা করেন রাসেল চৌধুরী ও মিনহাজুল। মোটরসাইকেলটির চালক ছিলেন মিনহাজুল।

আরো বলা হয়, বিএনপির নেতা এম এ কাইয়ুমের পরিকল্পনা ও অর্থায়নে তাভেলা সিজারকে হত্যা করা হয়। কাইয়ুম পরিকল্পনা করলেও সেটা বাস্তবায়ন করেন তাঁর ছোট ভাই আবদুল মতিন।

গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর গুলশান ২ নম্বরের ৯০ নম্বর সড়কের ফুটপাতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন ইতালির নাগরিক তাভেলা সিজার (৫০)। নেদারল্যান্ডভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা আইসিসিওবিডি কো-অপারেশনের ‘প্রফিটেবল অপরচুনিটিজ ফর ফুড সিকিউরিটির প্রকল্প ব্যবস্থাপক হিসাবে এদেশ কর্মরত ছিলেন।

অন্য খবর  চার মামলা জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের ঘটনায়

এ ঘটনার পরদিন রাতে আইসিসিওবিডি-র বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি হেলেন সাফ ভ্যান ডাক বিক বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

 

Comments

comments