আদালত ভবন থেকে লাফ দিয়ে দোহারের তরুণীর আত্মহত্যা

234
কেন কেন?

ঢাকা জেলা জজ আদালতের পুরনো ভবনের ছাদ থেকে পড়ে রাবেয়া আক্তার (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে আদালতের উত্তর পাশের বিল্ডিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত রাবেয়া আক্তারের বাড়ি ঢাকার দোহারে।

এদিকে নিহত রাবেয়ার মা সালমা বেগম জানান, তার মেয়ে কখনো আত্মহত্যা করতে পারে না। রাবেয়ার সাবেক স্বামী আতিকুর রহমান মামুনই তাকে ধাক্কা দিয়ে ছাদ থেকে ফেলে হত্যা করেছে। গতকাল আতিক তাকে ব্ল্যাকমেইল করে আদালত প্রাঙ্গণে নিয়ে এসেছিল। তিনি আনও জানান, রাবেয়া মালিবাগ আবুজর গিফারী বিশ্ববিদ্যালয়ের এইচএসসির ছাত্রী।

চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি আতিক তার মেয়েকে জোর করে তুলে নিয়ে বিয়ে করে। বিয়ের কিছু দিন পর আতিকের প্রকৃত চেহারা স্পষ্ট হয়ে ওঠে। রাজধানীর বিভিন্ন থানায় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজির মামলার বিষয়টি জানার পর আতিককে দুই মাস আগে রাবেয়া ডিভোর্স দেয়। এর পর থেকে ক্ষিপ্ত ছিল আতিক।

প্রত্যক্ষদর্শী এক কলম বিক্রেতা জানান, দুপুরের খাবার খাওয়ার জন্য ছেলেটি রাবেয়াকে প্রস্তাব দেয়। তবে রাবেয়া তা প্রত্যাখ্যান করতে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। জানা গেছে, রাবেয়ার বাবার নাম আবদুর রাজ্জাক। বাবা-মায়ের সঙ্গে তারা ৪৪ পশ্চিম মালিবাগে ভাড়া থাকতেন।

অন্য খবর  মেঘনা সেতুতে মাসে ৩০-৪০ লাখ টাকার টোল কম পেয়েছে সরকার: ফেসে যাচ্ছেন ইঞ্জিনিয়ার মেহবুব

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলম জানান, রাবেয়ার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করা হয়েছে। সেই ফোনের ডায়াল নম্বরের মাধ্যমে তার বাবা-মাকে খবর দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ওই ছেলেটির সম্পৃক্ততা যাচাইপূর্বক তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Comments

comments