অস্ট্রেলিয়া-ভারতের পর বেশি টেস্ট খেলার সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ!

60

আইসিসির সভায় নতুন ভবিষ্যৎ সফর সূচি প্রস্তাব করেছে ভারত। স্বাভাবিকভাবেই ধনী বোর্ডের কথায় সম্মত হয়েছে বাকি বোর্ডগুলো। সেই ভবিষ্যৎ সফর সূচিতে (এফটিপি) লাভবান হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ! এতদিন ধরে টেস্ট ম্যাচ কম হওয়াতে একটা অভিযোগ ছিল ক্রিকেটারদের। সেই অভিযোগে হয়তো কিছুটা হলেও প্রলেপ পড়বে! নতুন এফটিপিতে দুটি টেস্ট বেশি পাচ্ছে বাংলাদেশ। বর্তমান এফটিপিতে বাংলাদেশের টেস্ট সংখ্যা ছিল ৩৩টি আর নতুন মডেলে বাংলাদেশ পাচ্ছে ৩৫টি। শুধু তাই নয় ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের পর সর্বাধিক টেস্ট পাচ্ছে বাংলাদেশই!

সবগুলোই খেলা হবে ২০১৯ থেকে ২০২৩ মৌসুমে।  এই পরিকল্পনা ৯টি টেস্ট খেলুড়ে দল ও ওয়ানডে লিগ মাথায় রেখেই করা হয়েছে। বিষয়গুলো প্রস্তাবিত হওয়ায় এখনও আনুষ্ঠানিক অনুমোদন বাকি। ফেব্রুয়ারিতে প্রধান নির্বাহীদের সভায় উপস্থাপনের পর জুনেই হয়তো চূড়ান্ত রূপ দাঁড়াবে এই পরিকল্পনার। এটা প্রস্তাবিত পরিকল্পনা হলেও আপাতদৃষ্টিতে তেমন কিছুই যে হবে সেটা এক প্রকার আনুমান করাই যায়।

একই সঙ্গে প্রস্তাবিত সূচিতে নিজেদের সূচিটাও তুলে ধরেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। ২০১৯ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত কাদের সঙ্গে কী ফরম্যাটে খেলবে তার একটা পরিকল্পনাও দেখিয়েছে তারা। সেখানে অবশ্য ভারতের সঙ্গে কোনও ওয়ানডে খেলার সুযোগ পাচ্ছে না বাংলাদেশ। হোম ও অ্যাওয়ে ভিত্তিতে টেস্ট সিরিজ খেলারই সুযোগ পাবে বাংলাদেশ!

অন্য খবর  সৌদিতে আরো গৃহকর্মী পাঠাবে বাংলাদেশ

প্রস্তাবিত-সূচিঅবশ্য সার্বিকভাবে টেস্টের সংখ্যা কমানো হয়েছে নতুন এফটিপিতে। যেখানে আগের সূচিতে ( মে ২০১৪ থেকে মে ২০১৯) ছিল ২৩৮টি টেস্ট এবার নতুন সূচিতে (মে ২০১৯ থেকে মে ২০২৩) টেস্ট খেলা হবে ১৭৫টি! সেই সঙ্গে এবার যুক্ত হয়েছে আরও দুটি দল- আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ড। এই সূচিতে অবশ্য টেস্ট লিগে জিম্বাবুয়েকে বাইরেই রাখা হয়েছে। কারণ আর্থিকভাবে দৈন্যদশায় থাকা এই বোর্ড সেভাবে টেস্ট খেলতে আগ্রহী নয়।

Comments

comments