অভাবের তাড়নায় দোহারে সন্তানকে লবন খাইয়ে হত্যা মার

436
অভাবের তাড়নায় দোহারে সন্তানকে লবন খাইয়ে হত্যা মার

ঢাকার দোহার উপজেলার উত্তর জয়পাড়া মিয়াপাড়া এলাকায় দুই মাসের শিশু সন্তানকে লবন খাইয়ে হত্যার দুঃখজনক অভিযোগ পাওয়া গেছে এক মায়ের বিরুদ্ধে। অভাবের সংসারে দুধের টাকা যোগাতে না পারায় রাগে ক্ষোভে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে জানায় পুলিশ। এই মায়ের নাম সাথী আক্তার (২১)।

জানা গেছে, তিন বছর আগে উপজেলার উত্তর জয়পাড়া মিয়াপাড়া এলাকার শেখ বাদশার ছেলে শেখ বাচ্চুর সাথে পাশ্ববর্তী খালপাড়া গ্রামের তোতা খালাসীর মেয়ের বিয়ে হয়। বাচ্চু শেখ রাজমিন্ত্রীর কাজ করে সংসার চালাত। মাঝেমধ্যে বাচ্চুর সাথে তার স্ত্রীর সাথে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ঝগড়া হতো। তাদের ঘরে সাবিহা আক্তার নামে দুই বছরের একটি মেয়ে সন্তান ও মো. সায়েম নামে দুই মাসের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

গত রবিবার সকালে সায়েমের দুধ আনার জন্য স্বামীকে বলে সাথী। বিকেল পাঁচটার দিকে স্বামী দুধ না নিয়ে বাড়িতে আসলে সন্তানের দুধের টাকা যোগানোর জন্য আশপাশের কয়েকজনের কাছে ধন্যা দেয় সাথী। টাকা যোগাতে না পেরে সন্ধার দিকে বাড়িতে গিয়ে রাগে ক্ষোভে দুই মাসের সন্তান সায়েমকে লবন খাইয়ে দেয় সে। তাৎক্ষণিকভাবে শিশুটির শ্বাসকষ্ট শুরু হয়।

অন্য খবর  ফুটবল খেলা নিয়ে নবাবগঞ্জে সংঘর্ষ  

রোববার সন্ধা ৭টার দিকে বাচ্চু শেখ কাজ থেকে বাড়ি ফিরে দেখতে পায় তার দুই মাসের শিশু সন্তান সাইফের মুখে লবণ। এ সে অবস্থায় অচেতন হয়ে পড়ে আছে। এ সময় বাচ্চু সাইফকে নিয়ে দোহার উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. আল আমিন বলেন, মৃত অবস্থায় শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসে স্বজনরা। সে শ্বাসনালী বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারে।

পুলিশ খবর পেয়ে সোমবার সকাল ৯টার সময় শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। আটক করা শিশুটির মা সাথী আক্তারকে।

মো. বাচ্চু নিউজ৩৯কে বলেন, আমাদের অভাবের সংসার, টানপোড়ন লেগেই থাকে। আমাকে দুধের কথা বলেছিল, আনতে পারিনি। দুধের টাকা যোগাতে না পারায় রাগে কষ্টে ছেলেকে মেরে ফেলেছে ওর মা।

এ বিষয়ে দোহার থানার ওসি তদন্ত ইয়াছিন মুন্সী জানান, এ ঘটনায় শিশুটির মাকে আটক করা হয়েছে। একটি হত্যা মামলার প্রক্রিয়া চলছে। তবে কী কারণে শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে তার প্রকৃত কারণ তদন্ত সাপেক্ষে জানা যাবে।

Comments

comments