অডিও ক্যাসেট টেপ আবিষ্কারক লুউ অটেন্স আর নেই

51

অডিও ক্যাসেট টেপ আবিষ্কারক লুউ অটেন্স আর নেই ১৯৬০ এর দশকে এই ডাচ ইঞ্জিনিয়ার ক্যাসেট টেপ আবিষ্কার করেন। ফলে রাতারাতি বিশ্বে যেন এক বিপ্লব চলে আসে। মানুষ কথাবার্তা রেকর্ড করতে এসব ক্যাসেট ব্যবহার শুরু করেন। তার এই আবিষ্কারের ফলে সারাবিশ্বে কমপক্ষে ১০ হাজার কোটি ক্যাসেট টেপ বিক্রি হয়েছে। তবে আধুনিক সময়ে সিডি ও পেনড্রাইভ প্রযুক্তি আসার ফলে এর কদর অনেকটা কমে গেছে। এর ব্যবহার এখন নেই বললেই চলে।
লুউ অটেন্সের নিজের বাড়ি ডুইজেলে গত সাপ্তাহিক ছুটির দিনে তিনি মারা গেছেন। তবে বিলম্বে মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে তার পরিবার। উল্লেখ্য, ১৯৬০ সালে ইলেকট্রনিক ব্রান্ড ফিলিপসের প্রডাকশন ডেভেলপমেন্ট বিভাগে প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পান লুউ অটেন্স। সেখানেই তিনি এবং তার দল ক্যাসেট টেপ প্রযুক্তি আবিষ্কার করেন।

১৯৬৩ সালে তাদের এই প্রযুক্তি বার্লিন রেডিও ইলেকট্রনিক মেলায় উপস্থাপন করেন তারা। সাথে সাথে বিশ্বজুড়ে মানুষ লুফে নেয় এই প্রযুক্তি।
লুউ অটেন্স এ প্রযুক্তি নিয়ে ফিলিপস এবং সনি কোম্পানির সাথে একটি চুক্তি করেন। একই মাপের জাপানি কোম্পানিগুলো ক্যাসেট টেপ বের করার পর ফিলিপস ও সনি চুক্তির মাধ্যমে নিশ্চিত করে লুউ অটেন্সকে। তারপর তা বাজারে আনা হয়। এই আবিষ্কারের সুবর্ণজয়ন্তীতে বিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিনকে তিনি বলেছিলেন, প্রথম দিন থেকেই তার এই আবিষ্কার একটা সেনসেশন ছিল।
উল্লেখ্য, এ ছাড়াও কম্প্যাক্ট ডিস্ক উন্নয়নেও জড়িত ছিলেন লুউ অটেন্স। এখন পর্যন্ত এই ডিস্ক বিশ্বজুড়ে বিক্রি হয়েছে কমপক্ষে ২০,০০০ কোটি পিস। ১৯৮২ সালে ফিলিপস সিডি প্লেয়ার প্রদর্শন করে। তখন লুউ অটেন্স বলেছিলেন, এখন থেকে প্রচলিত রেকর্ড প্লেয়ার অপ্রচলিত হয়ে গেল। এর চার বছর পরে তিনি অবসরে যান। ক্যারিয়ার সম্পর্কে তিনি বলেছেন, তার সবচেয়ে বড় দুঃখ হলো ফিলিপস পারেনি, তবে সনি তৈরি করে ফেলেছে আইকনিক ক্যাসেট টেপ প্লেয়ার, ওয়াকম্যান।

অন্য খবর  যুক্তরাষ্ট্র আবার বিশ্বকে নেতৃত্ব দেবে, পিছপা হবে নাঃ জো বাইডেন

Comments

comments